চৌগাছায় প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামী পুলিশ হেফাজতে

71

যশোর ব্যুরো ## যশোরের চৌগাছায় এক পল্লীতে হাসু খাতুন (২৫) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের বাম হাতের রগ ও বাম পায়ের রগ ব্লেড দিয়ে খোঁচানো  ছিল।

নিহত হাসু খাতুন  চৌগাছা  উপজেলার চাকলা গ্রামের আলাউদ্দিনের স্ত্রী। আলাউদ্দিন সম্প্রতি দুবাই থেকে বাড়িতে এসেছেন।
চৌগাছা থানার  এনামুল জানান, আজ রোববার  সকাল সাড়ে ৭টায় সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে তাদের পৌছানোর আগেই মরদেহটি নামিয়ে ফেলেন আলাউদ্দিনের মা (হাসুর শাশুড়ি)।  পরে মরদেহটি উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাসুর স্বামী আলাউদ্দিনকে হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

হাসুর পিতা মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, একই গ্রামের আলাউদ্দিনের সাথে ১০ বছর আগে আমার মেয়ের বিয়ে হয়। গত ১০/১২ দিন আগে জামাই আলাউদ্দিন দুবাই থেকে দেশে ফেরেন। আমি বিপদে পড়ে জামাইয়ের কাছে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকায় একটি জমি বিক্রি করেছিলাম। আমার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গতকাল (শনিবার) সে আমার কাছে ২ লাখ টাকা দাবি করে। আমি টাকা দিতে পারবো না জানিয়ে বলি জমি অন্য কোথাও বিক্রি করে দাও। ওই ঘটনায় গতকাল জামাই আলাউদ্দিন রাগারাগি করে বাড়ি চলে যায়। সকালে শুনছি আমার মেয়ে মারা গেছে। সংবাদ শুনে মেয়ের বাড়ি এসে দেখি তার হাত ও পায়ের রগ কাটা। গায়ে খেজুরের কাটা ফোটানো আছে। তিনি দাবি করেন তার মেয়েকে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে।

উপজেলার  হাকিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হাসান বলেন, প্রাথমিকভাবে এটাকে হত্যাকান্ড বলেই মনে হচ্ছে। লাশের বাম হাতের রগ কাটা অবস্থায় রয়েছে। বাম পায়েও ধারালে কিছু দিয়ে কাটার দাগ রয়েছে। পুলিশ তদন্ত করলেই বিষয়টি পরিস্কার হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, মরদেহের বাম হাত ও বাম পায়ের রগ কাটা আছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাসুর স্বামী আলাউদ্দিনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদহে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
তিনি বলেন এটা হত্যাকান্ড কীনা তদন্ত না করে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না।