জীবন ফিরে পেলাম বাড়ি ফেরার পর বললেন সৌরভ

32

মামুন বাবু ##

হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে এলেন তিনি। তার পরই চিকিৎসকের কথা শেষ হতেই বললেন, ‘‘চিকিৎসক, নার্স থেকে হাসপাতাল কর্মী এবং গুণমুগ্ধদের ধন্যবাদ।’’ সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ির পথে এই কথাটুকুই বলে গেলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার ছাড়া পাওয়ার খবর পেয়ে হাসপাতালের সামনে ভিড় জমান ‘মহারাজ’-এর ভক্তরা। প্রায় একই রকম ছবি ছিল বেহালার বীরেন রায় রোডের বাড়ির সামনেও। বাড়ি ফিরে একবার বেরিয়ে আসেন সৌরভ। সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘‘আমি ভাল আছি। জীবন ফিরে পেলাম। ধন্যবাদ।’’

ছুটি হয়েছিল বুধবারই। কিন্তু সৌরভ নিজেই আরও এক দিন হাসপাতালে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সেই অনুযায়ী বন্দোবস্ত করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও। সেই মতোই আজ বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরলেন সৌরভ। নস্যি রঙের জ্যাকেট ও মুখে মাস্ক পরে হাসপাতালের সামনে দাঁড়িয়ে সৌরভ বলেন, ‘‘এখানকার চিকিৎসক, নার্স, হাসপাতালের কর্মীরা যে ভাবে আমার সেবাযত্ন ও চিকিৎসা করেছেন, তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।’’ তবে সাংবাদিকদের কোনও প্রশ্নের উত্তর দেননি। হাসপাতালের ভিতরে চিকিৎসক ও হাসপাতাল আধিকারিকদের সঙ্গে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

 

সৌরভ বাড়ি ফেরার পর আলিপুরের ওই বেসরকারি হাসপাতালের সিইও রূপালি বসু বলেন, ‘‘আমরা ভীষণ খুশি।’’ সৌরভের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে রূপালি বলেন, ‘‘আরও দু’টো ব্লকেজ রয়েছে। তবে সেটা খুবই মাইনর। পরে কোনও সময় সেটার চিকিৎসা করিয়ে নিলেই হবে।’’

অন্য দিকে হাসপাতাল সূত্রে খবর, আপাতত দু’সপ্তাহ চিকিৎসকদের পরামর্শমতো কঠোর নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। তার মধ্যেই শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষাও চলবে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, আপাতত সৌরভের রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, থাইরয়েড এবং অন্যান্য শারীরিক মাপকাঠি নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই রয়েছে। কিন্তু স্টেন্ট বসানোর পরে সেই পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন হচ্ছে কি না, তা নিয়মিত ব্যবধানে পরীক্ষা করে দেখা হবে।

 

সৌরভের শারীরিক পরিস্থিতির বিষয়ে নিয়মিত শলাপরামর্শ চালিয়ে যাবেন মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা। দু’সপ্তাহ পর তাঁর পরবর্তী চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তাঁরা। এই ১৫ দিন রেড মিট, অতিরিক্ত ফ্যাট জাতীয় খাবার খেতে বারণ করেছেন চিকিৎসকরা। হাঁটা চলাও করতে হবে নিয়ন্ত্রিত ভাবে। বেশিরভাগ সময়ই বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।