• ২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:১৪
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

আইনি লড়াইয়ে স্বপদে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত জুন ৩, ২০২১, ১৮:৪১ অপরাহ্ণ
আইনি লড়াইয়ে স্বপদে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

মোস্তাফিজুর রহমান, প্রতিনিধি লালমনিরহাটঃ

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েসকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত পর প্রায় ৭ মাস পর স্বপদে বহাল রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ উপজেলা-০১ শাখা।বুধবার (২ জুন) বিকেলে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় স্বাক্ষরিত একটি পত্র লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে আসেন। এর আগে ১ জুন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মমতাজ বেগম স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ কথা উল্লেখ করা হয়েছে। যার অনুলিপি রংপুর বিভাগীয় কমিশনারসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েসকে (সাময়িক বরখাস্ত) স্থগিত করে স্বপদে বহাল রাখার খবরে এলাকা চলছে আনন্দের বন্যা । খবর পেয়ে তার কর্মী সমর্থকরা বিকাল থেকে বাসায় ভীড় জমাচ্ছেন।

জানা গেছে, স্থানীয় সরকার বিভাগ গত (৩০ নভেম্বর) বিকালে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নুমেরী জামান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা যায়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ এর ১৩(খ)(১) ধারা অনুসারে আদিতমারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক ইমরুল কায়েসকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।ফারুক ইমরুল কায়েস এ বরখাস্থ আদেশের বিরুদ্ধে মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগে একটি রিট পিটিশন করেন। রিট পিটিশন নং-১৬৮৭/২০২০। হাইকোর্ট বিভাগ গত ২২ ডিসেম্বর তার সাময়িক বরখাস্থ আদেশকে স্থগিত করে আদেশ প্রদান করেন।এ দিকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েসের বহিস্কার স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে সিভিল পিটিশন ফর লিভ টু আপিল করা হয়৷ আপিল নং-১০/২০২১ ও ২৬৪/২০২১ ইং। এ আপিলের বিরুদ্ধে আদালত গত ২৫ ফেব্রুয়ারী তার স্থগিতাদেশটি বহাল রেখে রায় প্রদান করেন। আদিতমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান (সাময়িক বহিস্কার) ফারুক ইমরুল কায়েস তার স্বপদে বহাল রাখার বিষয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের বিজ্ঞ প্যানেল আইনজীবীর মাধ্যমে তিনি মতামত প্রদান করেন। মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত রিট পিটিশন নং-১৬৮৭/২০২০ এর আদেশ এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের বিজ্ঞ প্যানেল আইনজীবীর মতামত অনুযায়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে স্বপদে বহাল থাকার বিষয়ে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১২ নভেম্বর আদিতমারী উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় উন্নয়ন সভার হট্টোগোলকে কেন্দ্র করে বিকালে আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিনসহ উপজেলার অন্যান্য ১৭ দফতরের কর্মকর্তারা একযোগে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বরাবর উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েসের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। পরে ১৫ নভেম্বর ইউএনও বাদী হয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকি প্রদানের অভিযোগে জিডি করেন। উপজেলা পরিষদের ১৯টি চেকের পাতা ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় একই দিনে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আরও একটি জিডি করা হয়।

Sharing is caring!