• ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৩৩
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

আমি রাজানগরবাসীর পাশে ছিলাম, আছি, থাকবো- স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী জাহাঙ্গীর 

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত নভেম্বর ১, ২০২১, ২৩:২০ অপরাহ্ণ
আমি রাজানগরবাসীর পাশে ছিলাম, আছি, থাকবো- স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী জাহাঙ্গীর 
এম. মতিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো।।
গামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় তৃতীয় ধাপের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১নং রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর।
সোমবার (১ নভেম্বর) বেলা ১২টায় রাজানগর ইউনিয়ন রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানের কাছে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন।
মনোনয়ন দাখিল শেষে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর বলেন, ‘গত ২০১১ সালের ইউপি নির্বাচনে রাজানগর ইউনিয়নবাসী আমাকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। ইউনিয়নবাসীর চাওয়া পাওয়ার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই এবার স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছি। জনগণ সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারলে আমি আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হব- ইনশা আল্লাহ।
দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নাহ্, আমি দলের বিদ্রোহী প্রার্থী নই। দলীয় রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে উন্নয়নের স্বার্থে আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। আমি রাজানগর ইউনিয়নের একজন সফল চেয়ারম্যান ছিলাম। আমি ২০১১ সালের প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যানসহ ৪ প্রার্থীকে হারিয়ে বিপুল ভোটে ১ নং রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলাম। আমার সময়ে ১নং রাজানগর ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।
দলে যুক্ত থেকে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন? এমন প্রশ্নের প্রতিউত্তরে তিনি বলেন, ইউনিয়নবাসীর সমর্থনে আমি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি। আমি বিগত দিনে যেভাবে রাজানগরবাসীর উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছিলাম, সেভাবে ভবিষ্যতেও রাখবো। আমার নিজ ওয়ার্ড সহ কয়েকটি ওয়ার্ডের অসংখ্য রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে। স্থানীয় লোকজনের যোগাযোগ ব্যবস্থা চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এদিকে বর্তমান চেয়ারম্যানের কোনো দৃষ্টি নেই, কেবল ভোটের মৌসুম এলেই এরা জনগণকে ধোঁকা দেয়ার চেষ্টা করেন। সাধারণ মানুষ এখন অনেক সচেতন। তাদের ধোঁকা দিয়ে কখনো ভোট আদায় করা যাবে না।
জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর বলেন, অতীতে যেভাবে এই ইউনিয়নের মানুষের পাশে ছিলাম, বর্তমানে আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ। তিনি একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে সরকার এবং স্থানীয় নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান।৷
 বার্তাকণ্ঠ /এন

Sharing is caring!