• ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:০১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ইফতার সামগ্রী নিয়ে দুয়ারে দুয়ারে হিরো আলম

bmahedi
প্রকাশিত এপ্রিল ২০, ২০২১, ১২:১৮ অপরাহ্ণ
ইফতার সামগ্রী নিয়ে দুয়ারে দুয়ারে হিরো আলম

বিনোদন ডেস্ক ## মানুষ ছোট, কিন্তু তার অন্তর বড়। ফেসবুক ও ইউটিউবের আলোচিত মুখ হিরো আলম সম্পর্কে মানুষ এমনটাই বলে থাকেন। তিনি সাধ্যমতো গরীব মানুষদের সাহায্য করেন। কখনো নগদ টাকা দিয়ে, কখনো বা খাবারের বস্তা দিয়ে। বিভিন্ন সময়ে তার নজিরও দেখা গেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। হিরো আলম যেহেতু বগুড়ার ছেলে, তাই নিজ এলাকাতেই তিনি সাহায্য সহযোগিতা বেশি করেন।

তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার বগুড়ায় গিয়ে নিজ এলাকার ৩০০ দুস্থ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন হিরো আলম। এখন যেহেতু রমজান মাস চলছে, তাই খাবারের বস্তায় সবই ছিল ইফতার সামগ্রী। এই যেমন কাঁচা ছোলা, মুড়ি, চিনি, খেজুর, শুকনো বুন্দিয়া ইত্যাদি। প্রতিটি বাড়িতে গিয়ে হিরো আলম নিজ হাতে এসব ইফতার সামগ্রী পরিবারের সদস্যদের হাতে ‍তুলে দেন।

হিরো আলম জানান, ‘খুব বেশি কিছু করতে পারিনি। অসহায় বা আর্থিক সমস্যায় যারা রয়েছেন, রমজান মাসে সামর্থ্য মতো তাদের একটু সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। ঈদের পাঁচ দিন আগে থেকে সেমাই, চিনিসহ শাড়ি, লুঙ্গি বিতরণ করবো ঠিক করেছি। করোনার কারণে মানুষের হাতে কাজ নাই, টাকা নাই। তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন।’

এর আগে গত বছরের লকডাউনের সময়েও বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবারের বস্তা পৌছে দেন হিরো আলম। সে সময় পাঁচ শতাধিক পরিবারকে তিনি খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দেন। এছাড়া গত বছর বন্যার সময় বগুড়ায় গিয়ে নৌকায় করে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বন্যার্তদের কাছে পৌছে দিতে দেখা যায় তাকে। যেখানে নৌকা যায়নি, সেখানে খাবারের বস্তা মাথায় করে পৌছে দিয়েছেন।

 

বছর কয়েক আগে নিজ অর্থায়নে কিছু ফানি ও মিউজিক ভিডিও বানিয়ে সেগুলো ফেসবুক ও ইউটিউবে পোস্ট করে আলোচনায় আসেন হিরো আলম। দিন যত যায় ততই তার পরিচিতি বাড়তে থাকে। তবে আলোচনার পাশাপাশি তাকে নিয়ে হয় সমালোচনাও। অধিকাংশেরই মত, হিরো আলম অভিনয় জানেন না। এছাড়া তার চেহারা আর দৈহিক ফিগার তো আরও খারাপ।

 

আরও পড়ুন>>> করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে কবরীর ছেলে

 

কিন্তু কোনো সমালোচনাকেই গায়ে মাখতে নারাজ হিরো আলম। চালিয়ে যান অভিনয়। একপর্যায়ে তিনি ‘মার ছক্কা’ নামে একটি ছবিতে অভিনয় করে চলচ্চিত্রেও নাম লেখান। এরপর নিজ প্রযোজনায় নির্মিত ‘সাহসী হিরো আলম’ নামে আরও একটি ছবিতে তিনি অভিনয় করেন। অভিনয়ের বাইরে বর্তমানে তিনি আলোচনায় ধারাবাহিক কয়েকটি গান গেয়ে।

 

তবে হিরো আলম তার জীবনের সবচেয়ে বড় চমকটি দেন গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ আসন থেকে এমপি পদের জন্য মনোনয়নপত্র কিনে। প্রথমে তিনি জাতীয় পার্টি থেকে নমিনেশন চান। না পেয়ে পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন। যদিও পরে ওই আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কাছে তিনি বড় ব্যবধানে হেরে যান।

 

 

সে সময় হিরো আলমের প্রার্থিতা আটকে দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। সেটাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দারস্থ হয়ে তিনি প্রার্থিতা ফেরত আনেন। তার মতো একজন মানুষ নির্বাচনে এমপি পদের জন্য মনোনয়ন কেনা থেকে শুরু করে হাইকোর্টে মামলা করে প্রার্থিতা ফেরত পাওয়া- এই গোটা ঘটনার জন্য সারাদেশের মানুষ আরও বেশি করে চিনেছে হিরো আলমকে।

Sharing is caring!