কিছু অভ্যাস কমিয়ে দিচ্ছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

50

ফয়েজ আহম্মেদ ## শুধু করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচতেই নয়, অন্য জীবাণুর আক্রমণ থেকে বাঁচতেও রোগ প্রতিরোধ শক্তির দরকার। কিন্তু আমাদের জীবনযাপনে নানা সমস্যার ও প্রতিদিনের কিছু অভ্যাসের কারণে ক্রমশ কমতে থাকে এই ক্ষমতা।

 

রোগ প্রতিরোধ শক্তি বজায় রাখতে এই বিষয়গুলো মাথায় রাখা জরুরি:

প্রচুর পানি পান

শরীরে পানির পরিমাণ কমে গেলে, রোগ প্রতিরোধ শক্তিও কমে যায়। কারণ শরীরে জমা জীবাণু মূত্রের সাথে বেরিয়ে যায়। পানি খাওয়া কমালে সেগুলো বেরোতে পারে না। পর্যাপ্ত পানি পানে কিডনি, যকৃৎ, হৃৎপিণ্ড ও মস্তিষ্ক ভালো থাকে। শরীরে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে। পানি শরীরের ভেতরের কোষগুলোকে সবল ও স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। পানি পানের ঘাটতি দেখা দিলে এই কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

অনিয়মিত ঘুম 

সুস্থ থাকতে হলে নিয়মিত ঘুমের বিকল্প নেই। কারণ সারা দিনের ক্লান্তি দূর করে ঘুম। তাই প্রতি রাতে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে। তবে একেক দিন একেক সময়ে ঘুম ও পর্যাপ্ত মাত্রায় না ঘুমানো- রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। করোনাকালেও চিকিৎসকেরা ঘুমের গুরুত্ব দিতে বলছেন। কারণ সঠিক মাত্রায় ঘুম না হলে, জীবাণুর সাথে মোকাবিলা করা কঠিন।

ধূমপান 

রোগ প্রতিরোধ শক্তি কমাতে এর ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। ধূমপান ছাড়তেই হবে। না হলে শুধু কোভিড নয়, পরে আরো বড় রোগবালাই হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেড়ে যায়।

অলস জীবন নয় 

বেশি চলাফেরা না করা, এক জায়গায় বেশিক্ষণ বসে থাকা ও তার সাথে প্যাকেটের ভাজাভুজি বা ঠান্ডা পানীয় খাওয়া- সব ক’টিই রোগ প্রতিরোধ শক্তি কমিয়ে দেয়।

মন হালকা করুন 

মানসিক চাপ কমলে রোগ প্রতিরোধ শক্তিও বাড়ে। মানসিক চাপ থেকে ক্যান্সারের মতো সমস্যাও হতে পারে। হালে এমনই বলছেন চিকিৎসকেরা। মানসিক চাপকে অনেকেই হালকাভাবে দেখে থাকে। অথচ এটি ভীষণই স্পর্শকাতর একটি বিষয়। মানসিক চাপ থেকেই পরবর্তী সময়ে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই যতটা সম্ভব নিজেকে মানসিক চাপ মুক্ত রাখার চেষ্টা করা উচিত।