• ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৪০
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ক্রমেই  হারিয়ে যেতে বসেছে দোঁপাটি ফুল 

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ৮, ২০২১, ১৯:৫০ অপরাহ্ণ
ক্রমেই  হারিয়ে যেতে বসেছে দোঁপাটি ফুল 
মেহেদী হাসান রাজু, রাজবাড়ী ।।
দোঁপাটি ফুল বাংলাদেশের একটি পরিচিত ফুল।  প্রায় অধিকাংশ অঞ্চলে এই ফুল জন্মে থাকে। একসময় রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন এলাকায় দোঁপাটি ফুলের দেখা মিললেও এখন আর তেমন দেখা মিলেনা। ফুল প্রেমীরা  বাগান ছারাও বাড়ীর আঙিনায় রোপন করতো বিভিন্ন রঙের দোঁপাটি ফুলের গাছ। আগের মত বাগান বা বাড়ীর আঙিনায় রোপন করাতে দেখা যায়না এই ফুলের চারা ফলে দোঁপাটি ফুলের  সেই সৌন্দর্য আর চোখে পরেনা । রাজবাড়ীতে প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে এই ফুলটি। ফুলকে ভালোবাসেনা এমন মানুষ পৃথিবীতে খুজে পাওয়া দুস্কর। প্রতিটি মানুষই ফুলের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়। প্রকৃতির সৌন্দর্যের অপরুপ সৃষ্টি ফুল। ফুলের  সৌন্দর্য শুধু  মুগ্ধই করেনা মনকে  আন্দোলিতও করে। প্রতিটি ফুলকে সৌন্দর্য ও প্রবিত্রতার প্রতীক ভাবা হয় । কিছু ফুল দেখতে অনেক সুন্দর নাহলেও সুন্দর গন্ধ ছড়ায়, কিছু ফুল সুগন্ধি না ছরালেও দেখতে অনেক সুন্দর আবার অনেক ফুল দেখতে যেমন সুন্দর তেমন সুগন্ধিধও ছরায়। বালিয়াকান্দি  উপজেলার সদর ইউনিয়নের ক্ষুদ্র নার্সারি মালিক ফুল প্রেমী গোপাল বিশ্বাস জানান, বাংলাদেশে লাল রঙের দোঁপাটি ফুল বেশী জন্মে থাকে। এছারাও বেগুনী, হলুদ, সাদা, পোলাপী রঙের দোঁপাটি ফুলের জাত হয়ে থাকে। আমার নার্সারীতে লাল রঙের দোঁপাটি ফুলের পাশাপাশি অন্য রঙের দোঁপাটি ফুলের চারা সংগ্রহ করেছি। সাধারনত লাল রঙের দোঁপাটি ফুল বেশী জন্মে থাকে। দোঁপাটি ফুলের গাছের মূল কান্ড থেকে অনেক গুলো শাখা বের হয়ে থাকে ফুলের রঙের ধরন বুঝে কান্ডর রং হলেও  প্রতিটি গাছের পাতার রং সবুজ হয়ে থাকে। একটি গাছে অনেক ফুল ধরে। বীজ বোপন করে চারা উৎপাদন করা হয়। বীজের রং এর উপর ভিত্বি করে বোঝাযায় কি রঙের ফুল হবে। সরাসরি মাটিতে রোপন ছারাও টবেও এই ফুল গাছ রোপন করা হয়।

Sharing is caring!