• ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০৬
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ক্ষেতলালে অর্ধলক্ষাধিক টাকার কলাগাছ কেটে ফেলল দূর্বৃত্তরা

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ৫, ২০২১, ২২:০২ অপরাহ্ণ
ক্ষেতলালে অর্ধলক্ষাধিক টাকার কলাগাছ কেটে ফেলল দূর্বৃত্তরা
শাহিনুর ইসলাম শাহিন, ক্ষেতলাল (জয়পুরহাট)।। 
জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বড়তারা ইউনিয়নের হোপ পূর্বপাড়া গ্রামের আঃ করিমের ছেলে কামরুল ইসলাম (২৬) এর কলা বাগানের সমস্ত কলা গাছ রাতের অন্ধকারে কর্তন করেছে  দূর্বৃত্তরা।
মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) সকালে সরজমিনে গিয়ে জানা যায, ক্ষেতলাল উপজেলার বড়তারা ইউনিয়নের হোপ পূর্ব পাড়া গ্রামের মোঃ আঃ করিমের ছেলে কামরুল হাসানের তফসিল বর্ণিত সম্পত্তি মৌজা-হোপ আর এস খতিয়ান নং-২৪৮, ৩০৯২ নং দাগে ২০ শতকের কাত ০৬ শতক সম্পত্তির ক্রয় সূত্রে মালিক, তফসিল বর্ণিত সম্পত্তির ০৬ শতক যেটি তার নিজ বসতবাড়ির পাশে। উক্ত জমিতে কলা বাগান তৈরি করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসতেছে কামরুল। কলাবাগানে প্রায় ১০০ টি কলাগাছের চারা রোপন করেছিলেন তিনি, বর্তমানে কলাগাছে কলা ধরা অবস্থায়, ৪ (অক্টোবর) রাতে শত্রুতাবশত প্রতিপক্ষের লোকজন কেটে ক্ষতি করতে পারে। এ ঘটনায় সে ক্ষতিগ্রস্ত।
এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কামরুল হাসান বাদী হয়ে  সন্দেহ মূলক ০৩ জনের বিরুদ্ধে ক্ষেতলাল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তরা হলেন ১. মোঃ নেজাম মন্ডল (৫৫) পিতা এনায়েত আলী, ২. মোঃ মাফিজুল (৩০) পিতা মৃতঃ মোজাম্মেল হোসেন, ৩. মোঃ লিটন (২৬) পিতা মোঃ নেজাম উদ্দিন, সর্ব সাং হোপ পূর্বপাড়া।
কামরুল ইসলাম জানান, আমার তফসিল বর্ণিত সম্পত্তিতে আমি ১০০ টি কলাগাছ রোপন করেছিলাম, বিদাদীগণ ইতিপূর্বে আমার তফসিল বর্ণিত সম্পত্তি অন্যায়ভাবে জবর দখল করার পায়তারা করে আসছিল। এই বিষয়ে বিবাদীগনের সঙ্গে গ্রাম্য শালিশ/দরবারও হয়েছে অনেকবার, ইহাতে প্রতিয়মান হয় যে উল্লেখিত বিবাদীগনই আমার কলাগাছগুলো কর্তন করে আমার প্রায় ৫০.০০০/- পঞ্চাশ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করেছে, তাই আমি উক্ত ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে সঠিক বিচার চাই।
স্থানীয়দের সাথে কথা বললে তারা জানান, এই সম্পত্তির মালিক কামরুল এবং সে দীর্ঘদিন ধরে এই জমি ভোগদখল করে আসতেছে রাতের অন্ধকারে কে বা কাহারা তার কলা বাগানের সমস্ত কলাগাছ কর্তন করেছে, যেই করুক কাজটি অন্যায় করেছে আমরা অপরাধীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছি
বড়তারা ইউপি’র ১,২,৩ নং মহিলা সংরক্ষিত  আসনের সদস্য মোছাঃ তাজমিনা বেগম জানান, এই সম্পত্তির মালিক কামরুল হাসান এবং তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখলে আছেন, রাতের অন্ধকারে কে বা কাহারা তার সকল কলা কাছ কেটে দিয়েছে, যেই করুক এটি একটি জঘন্যতম অপরাধ করেছে এই অপরাধের সুষ্ঠ বিচাই চাই।
ক্ষেতলাল থানা অফিসার ইনচার্জ নীরেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, এই বিষয়ে ক্ষেতলাল থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে আমরা ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

Sharing is caring!