• ২৭শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৪১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

চরম খাদ্য সংকটে আফগানিস্তান

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত নভেম্বর ৯, ২০২১, ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ
চরম খাদ্য সংকটে আফগানিস্তান

প্রতীকী ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

ফগানিস্তান চরম খাদ্য সংকটে পড়েছে। এতে দিন দিন হাসপাতালগুলোতে ভয়াবহ আকারে বাড়ছে অপুষ্টির শিকার শিশুর সংখ্যা। দেশটি খুব শিগগিরই দুর্ভিক্ষের কবলে পড়তে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব খাদ্য সংস্থা।

এর মধ্যেই ইউনিসেফকে সঙ্গে নিয়ে সংস্থাটি আফগানিস্তানে শুরু করেছে পোলিও টিকাদান কর্মসূচি। এদিকে, দেশটির ৪৪ প্রদেশে নতুন গভর্নরদের নিয়োগ দিয়েছে তালেবান সরকার।

মারাত্মক মানবিক বিপর্যয়ে আফগানিস্তান। ভয়াবহ খাদ্য সংকটে পৌঁছানো আফগানিস্তানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে অপুষ্টির শিকার শিশুর সংখ্যা। কাবুলের ইন্দিরা গান্ধী শিশু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, গেল বছরের চেয়ে কয়েক গুণ বেড়েছে অপুষ্টিজনিত রোগীর সংখ্যা।
 
এদিকে, লাখ লাখ আফগান দুর্ভিক্ষের কবলে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব খাদ্য সংস্থা। দেশটির অন্তত ৬০ ভাগ মানুষ ভুগছে খাদ্য সংকটে। বিশ্ব ব্যাংকের তথ্যমতে, দেশটিতে জিডিপির প্রায় ৪০ শতাংশ আন্তর্জাতিক সাহায্য। নতুন তালেবান সরকার আসার পর কমে গেছে সাহায্যের পরিমাণ। তালেবানের হাতে ক্ষমতা যাওয়ার পর থেকেই অর্থনৈতিক সংকট দিন দিন প্রকট হচ্ছে। এছাড়া শীতে মানবিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীল আফগানদের আরো হুমকির মধ্যে পড়তে হবে বলেও সতর্ক করেছে বিশ্ব খাদ্য সংস্থা।

এদিকে, চলমান সংকটের মধ্যেই জাতিসংঘ ভিত্তিক দুই প্রতিষ্ঠান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফের উদ্যোগে আফগানিস্তানে শুরু হয়েছে পোলিও টিকাদান কর্মসূচি। এই কর্মসূচি স্থানীয় সময় সোমবার থেকে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে শুরু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ডব্লিওএইচও। এর আওতায় আসবে অন্তত ৩০ লাখ আফগান শিশু। এদিকে, দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় যাতে টিকাকর্মীরা টিকা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করেতে পারে তাতে সহযোগিতা করছে তালেবান সরকার। স্বাস্থ্যসেবা পুরোদমে চালুসহ প্রতিরোধযোগ্য অসুখ নিরাময়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফকে পূর্ণ সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তালেবান।
  
এদিকে, আফগানিস্তানের বিভিন্ন প্রদেশের গভর্নর ও পুলিশ প্রধান হিসেবে ৪৪ সদস্যকে নিয়োগ দিয়েছে তালেবান সরকার। দেশটির নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক সমস্যা সমাধানসহ শাসনব্যবস্থা সুসংহত করার লক্ষ্যে এতো বড় নিয়োগ দিয়েছে তালেবান সরকার। এ নিয়োগের ফলে সাধারণ আফগানদেরও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে আশা প্রকাশ করছেন তারা।
 বার্তাকণ্ঠ/এন

Sharing is caring!