• ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:০০
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

চীনে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় – বিবিসি

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১, ১৩:২৫ অপরাহ্ণ
চীনে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় – বিবিসি

ছবি : সংগৃহীত

বার্তাকণ্ঠ  ডেস্ক ।।

চীনের ফুজিয়ান প্রদেশে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে। এর পেছনে ফুজিয়ানের পুটিয়ান শহরের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এমনটি জানানো হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ফুজিয়ানে এক স্কুলশিক্ষার্থীর বাবার মাধ্যমে করোনার ঢেউয়ের শুরুটা হয়ে থাকতে পারে। গত শুক্রবার তাঁর শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এর ৩৮ দিন আগে গত ৪ সেপ্টেম্বর তিনি সিঙ্গাপুর থেকে ফেরেন এবং ২১ দিন কোয়ারেন্টিনেও ছিলেন তিনি। কোয়ারেন্টিনকালে নয় বার নিউক্লেইক এসিড ও সেরলোজিক টেস্ট করান ওই ব্যক্তি। প্রতিটিতেই তাঁর করোনা নেগেটিভ আসে।

কিন্তু, এতকিছুর পরও কীভাবে তিনি করোনায় আক্রান্ত হলেন সে বিষয়ে কূলকিনারা মেলেনি। বিদেশে অবস্থানকালে আক্রান্ত হয়েছিলেন কি না, তা এখনও জানা যায়নি। ওই ব্যক্তির করোনা পজিটিভ আসার পরে ফুজিয়ানে চার দিনে একশ জনের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। ত্রিশ লাখ বাসিন্দার শহর পুটিয়ানে সবচেয়ে বেশি ছড়াচ্ছে করোনা। সাম্প্রতিক সংক্রমণের ঢেউয়ের মাস খানেক আগে জিয়াংসু প্রদেশের রাজধানী নানজিং শহরে ব্যাপকভাবে করোনা ছড়িয়ে পড়েছিল।

এবার পুটিয়ানে সংক্রমণের লাগাম টেনে ধরতে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রদেশের সব শিক্ষক-শিক্ষার্থীকে করোনার নমুনা পরীক্ষা করানোর নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

পুটিয়ান শহরের স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কেউ পুটিয়ানের বাইরে যেতে চাইলে গত ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করা করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে হচ্ছে।

স্কুলের পাশাপাশি জাদুঘর, সিনেমা হল ও গণগ্রন্থাগারগুলোর সশরীরে কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পুটিয়ানের পার্শ্ববর্তী শহর জিয়ামেন ও কুয়াঝুতেও করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। জিয়ামেনে গতকাল সোমবার ৩২ জনের করোনা ধরা পড়েছে, যাদের অধিকাংশই পুটিয়ানফেরত।

চীনের সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের প্রতিবেনে বলা হয়, নতুন সংক্রমণের ঘটনাগুলো ডেলটা ভ্যারিয়্যান্ট বলে প্রাথমিক তথ্য মতে জানা গেছে।

আগামী ১ অক্টোবর চীনের জাতীয় দিবস। এ উপলক্ষে চীনের অনেক মানুষ দেশের অভ্যন্তরে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ভ্রমণ করেন। এমন সময় এই সংক্রমণ বাড়ায় দুশ্চিন্ত দেখা দিয়েছে।

এ ছাড়া আগামী রোববার থেকে তিন দিনব্যাপী মধ্য-শরৎকালীন উৎসব শুরুর কথা রয়েছে।

 

 

 

 

 

Sharing is caring!