• ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:২৩
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

তৃতীয় বিয়ে থেকে মুক্তি পেতে মামলা করলেন শ্রাবন্তী

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২১, ১৩:৩১ অপরাহ্ণ
তৃতীয় বিয়ে থেকে মুক্তি পেতে মামলা করলেন শ্রাবন্তী

ছবি : সংগৃহীত

বিনোদন ডেস্ক ।।

শ্রাবন্তী আর রোশান সিং কাগজে-কলমে এখনো স্বামী–স্ত্রী। যদিও প্রায় এক বছর ধরে এক ছাদের নিচে থাকেন না তারা। তবে এবার লিখিতভাবেই এর পাট চুকিয়ে ফেলতে চান অভিনেত্রী। তাই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে তিনি। এই নায়িকার তৃতীয় সংসার ভাঙনের মুখে। স্বামী রোশানের সঙ্গে মনের দূরত্ব তৈরি হয়েছে অনেক আগে। প্রায় এক বছর ধরেই আলাদা থাকছেন তারা। এবার তৃতীয় বিয়ে থেকে মুক্তি পেতে আদালতে মামলা করলেন এই অভিনেত্রী। খবর নিউজ এইটিনের।

খবরে বলা হয়, ‘তৃতীয় বিয়ে থেকে মুক্তি পেতে’ ভারতের আলিপুর আদালতে বিয়ে বিচ্ছেদের মামলা করেছেন শ্রাবন্তী। মামলার শুনানি হবে ১০ ডিসেম্বর। ডিভোর্সের মামলা করার পাশাপাশি রোশনের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগও এনেছেন অভিনেত্রী।

এদিকে দুজনের মধ্যে ব্যক্তিগতভাবে কথা বন্ধ হলেও শ্রাবন্তীর রাজনৈতিক ইনিংস শুরুর আগে সংবাদমাধ্যমে স্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন রোশন।

রোশান বলেন, আমি তো বিয়ে করিনি এক বছরের জন্য, আমার তো এমন ভাবনা নয় যে, আমি বিয়ে করে ছেড়ে দেবো। ও (শ্রাবন্তী) না বুঝুক, আমাকে বুঝতে হবে। শুধু তাই নয়, শ্রাবন্তীর সঙ্গে সংসার করতে চেয়ে জুন মাসে ‘বৈবাহিক অধিকারের পুনঃপ্রতিষ্ঠা’ ধারায় মামলা দায়ের করেছিলেন রোশন। শিয়ালদহ কোর্টে মামলা করেন শ্রাবন্তীর এই তৃতীয় স্বামী। রোশানের করা মামলার ভিত্তিতে আদালত শ্রাবন্তীকে একটি সমনও পাঠিয়েছিলেন। তাতে বলা হয়েছিল, তার বক্তব্য পেশ করার জন্য শ্রাবন্তী যেন আদালতে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু তিনি আদালতে উপস্থিত হননি। সবশেষ বিয়ে বিচ্ছেদ চেয়ে নিজেই মামলা করলেন অভিনেত্রী।

এর আগে ১৬ বছর বয়সে পরিচালক রাজীব বিশ্বাসকে বিয়ে করেছিলেন শ্রাবন্তী। এরপর ২০১৬ সালে মডেল কৃষাণ ব্রজকে বিয়ে করেন তিনি। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই বিচ্ছেদের আবেদন নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অভিনেত্রী। ২০১৯ সালের কৃষাণের সঙ্গে শ্রাবন্তীর বিচ্ছেদ হয়। এর কয়েক মাসের মাথাতেই রোশনের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন অভিনেত্রী। এবার তারও বিচ্ছেদ চান তিনি।

প্রসঙ্গত, রোশন-শ্রাবন্তীর সম্পর্কে ফাটল ধরে গত বছর। আলাদা থাকতে শুরু করেন দম্পতি। চলতি বছরেই শ্রাবন্তীর নাম জড়িয়ে পড়ে অভিরূপ নাগ চৌধুরী নামে এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে। তিনি নাকি শ্রাবন্তীর কমপ্লেক্সেই থাকেন। একসঙ্গে প্রায়ই সময় কাটান তারা।

Sharing is caring!