• ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০৭
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বুড়িগঙ্গা রেল সেতু নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করলেন – রেলমন্ত্রী 

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১, ১৫:০২ অপরাহ্ণ
দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বুড়িগঙ্গা রেল সেতু নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করলেন – রেলমন্ত্রী 

দেলোয়ার হোসেন, ঢাকা ব্যুরো ।।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে থানাধীন কোন্ডা ইউনিয়নের কাজীরগাঁও এলাকায় বুড়িগঙ্গা রেল সেতু নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেছেন মাননীয় রেলমন্ত্রী মোঃ নুরুল ইসলাম সুজন।

এসময় রেলমন্ত্রী বলেছেন, নির্দিষ্ট সময়েই পদ্মা সেতুর বিদ্যুৎ ও গ্যাসসহ রেলের কাজ সম্পন্ন হবে। পদ্মা সেতু খুলে দেওয়া হবে আগামী বছরের জুনে। এ সময় মাওয়া থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরু হবে।  পরিদর্শনে এসে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে রেল লিংকের ভায়াডেক্ট-টু’তে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। এ সময় মন্ত্রী রিমোর্ট ক্রেন দিয়ে রেলের দেড়-কিলোমিটার এলাকা ঘুরে দেখেন।

রেলমন্ত্রী বলেন, ‌‘আমাদের আগামী মার্চ পর্যন্ত সময় লাগবে। সব কাজের পাশাপাশি রেলকেও যদি কাজ করার সুযোগ করে দেয়, তাহলে আমরাও কাজটা এগিয়ে নেবো। আজকে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে দেড় কিলোমিটার রেল ভ্রমণ করেছি। আগামী জুন মাসে সড়কপথ খুলে দেওয়া হবে। তখন আমরা ট্রেনে ভাঙ্গা থেকে মাওয়া পর্যন্ত সেতু পার হবো। এ পর্যন্ত রেল প্রস্তুত। শুধু সেতুর যে অংশে কাজ করার অনুমতি আমরা পাইনি সেটা বাকি। আশা করছি ডিসেম্বর বা জানুয়ারির মধ্যেও যদি অনুমতি পাই, তাহলে আনুমানিক ছয় মাসের মধ্যে কাজ শেষ করতে পারবো।’

পদ্মা সেতুর মাওয়া-ভাঙ্গা অংশের অগ্রগতি ৭১ শতাংশ। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা সব সময় সড়ককে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকি। মূল সেতু হলো সড়ক। এর সঙ্গে রেল, গ্যাস, বিদ্যুৎসহ অন্যান্য সেবা আছে। যারা টেকনিক্যাল ম্যান, তাদের সঙ্গে আমাদের সমন্বয়টা করা হচ্ছে। যদি কোনও কারণে আমরা একই দিনে রেল উদ্বোধন করতে না পারি, তাহলে বিকল্প চিন্তা রয়েছে। সেটা হলো, ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত পুরোটাই রেল অপারেট করবে। ভাঙ্গা থেকে মাওয়া পর্যন্ত ৭১ শতাংশ, আর ঢাকা থেকে মাওয়া পর্যন্ত অগ্রগতি ৪০ শতাংশ। ইতোমধ্যে রেলের সবকটি পিয়ার স্থাপন করা হয়েছে। সব গার্ডারও স্থাপিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে Cui Wenyong, পরিচালক, চায়না রেলওয়ে ইঞ্জি. ককর্পোরেশন রেলসেতু প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি বিষয়ে স্বল্পদৈর্ঘ্যের ভিডিও প্রদর্শন করেন৷ পরবর্তীতে মাননীয় রেলমন্ত্রী কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন এবং অনুষ্ঠান শেষে ১১.০০ ঘটিকায় মাওয়া -ভাঙ্গা পর্যন্ত পদ্মা ব্রিজ রেলসেতুর কাজের অগ্রগতি সরজমিনে পরিদর্শনের উদ্দেশ্য রওনা দেন ।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের ডিজি ও পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক মো. আফজাল হোসেন, রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা , ডি.এন. মজুমদার, মহাপরিচালক, বাংলাদেশ রেলওয়ে , আফজাল হোসেন, প্রকল্প পরিচালক, পদ্মা ব্রিজ রেলসেতু প্রকল্প, মেজর জেনারেল এফ.এম.জাহিদ, প্রধান সমন্ময়ক, পদ্মা ব্রিজ রেলসেতু প্রকল্প, Cui Wenyong, পরিচালক, চায়না রেলওয়ে ইঞ্জি. কর্পোরেশন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৷

Sharing is caring!