• ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:৩১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

পাঞ্জশিরে আক্রমণ, তালেবানের ওপর খেপেছে ইরান!

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১, ০৭:৪০ পূর্বাহ্ণ
পাঞ্জশিরে আক্রমণ, তালেবানের ওপর খেপেছে ইরান!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। 

আফগানিস্তানের প্রতিরোধযোদ্ধাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা শেষ স্থান পাঞ্জশির উপত্যকাও দখল নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান। সোমবার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

এদিকে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা জানায়, প্রদেশটিতে তালেবানের আক্রমণের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইরান।
 সোমবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে বলেন, পাঞ্জশির থেকে আমরা যে খবর পাচ্ছি তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। সেখানে রোববার যে হামলা চালানো হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়।
 
তিনি আরও বলেন, সবার জানা উচিত আফগানিস্তানের ইতিহাস প্রমাণ করেছে যে, বিদেশি হস্তক্ষেপের ফলে ব্যর্থতা ছাড়া আর কিছুই হবে না।পানশিরের জন্য শুধু রাজনৈতিক সমাধানই খোলা আছে এবং আন্তর্জাতিক ও মানবাধিকার আইন অনুযায়ী পানশিরের অবরোধ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য না।

এদিকে পাঞ্জশির দখলের দাবি করে তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ এক বিবৃতিতে বলেন, এই বিজয়ের মাধ্যমে আমাদের দেশকে পুরোপুরি যুদ্ধের জলাভূমি থেকে বের করে আনা হয়েছে।
 
আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা জানায়, সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে পাঞ্জশিরের সরকারি ভবনে তালেবানের পতাকা উড়ানোর একটি ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এদিকে ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ) জানিয়েছে, তালেবান মিথ্যা দাবি করেছে। ‘ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফোর্স অব আফগানিস্তান’ টুইট করে জানিয়েছে, ‘তালেবানের পাঞ্জশির দখলের দাবি মিথ্যা’।
 
তারা আরও লিখেছে ‘এখনও সেখানে প্রতিরোধ বাহিনী রয়েছে। আমরা লড়াই করছি। আমরা আফগানদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, যত দিন না স্বাধীনতা ও নিজেদের অধিকার ফিরে পাব তত দিন লড়াই চলবে।’
 
এদিকে তালেবানরা দাবি করেছে, পাঞ্জশিরে ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ) এর অন্যতম নেতা আহমদ মাসুদের বাড়িরও দখল নিয়েছে তারা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি ছড়িয়ে পড়েছে।
 
সেখানে দেখা যাচ্ছে মাসুদের বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন তালেবান বাহিনী।  এদিকে আল জাজিরা জানায়, সোমবার দিনের শুরুতেই পাঞ্জশিরের সরকারি ভবনে তালেবানের পতাকা উড়তে দেখা যায়।
 
এছাড়া আফগানিস্তানের পাঞ্জশির উপত্যকায় তালেবান বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ) মুখপাত্র ফাহিম দাশতি এবং আহমাদ শাহ মাসুদের ভাগ্নে জেনারেল আব্দুল ওয়াদুদ জারা নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ইরানের সংবাদ মাধ্যম পার্সটুডে।
 
রোববার( ৫ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় রাতে আহমাদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় প্রতিরোধ ফ্রন্ট তাদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।
 
ফাহিম দাশতি আফগানিস্তানে একজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তিনি ছিলেন একাধারে সাংবাদিক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক, আহমাদ শাহ মাসুদের এক সময়কার প্রেস সচিব এবং আফগানিস্তান সাংবাদিক ইউনিয়ের সাবেক সভাপতি।
 
ফাহিম দাশতি ও জেনারেল ওয়াদুদ কীভাবে নিহত হয়েছেন তা স্পষ্ট নয়; তবে তারা একটি হামলায় একসঙ্গে নিহত হয়েছেন। আহমাদ মাসুদ এক টুইটার বার্তায় লিখেছেন, “আহমাদ শাহ মাসুদের ওপর হামলায় ফাহিম দাশতির চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল এবং এবার পাঞ্জশিরে আরেক হামলায় তিনি প্রাণ হারালেন।”
 
এর আগে আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় পাঞ্জশির উপত্যকা নিয়ন্ত্রণকারী জাতীয় প্রতিরোধ ফ্রন্টের কমান্ডার আহমাদ মাসুদ যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে আলোচনার যে প্রস্তাব দিয়েছিলেন তালেবান তা নাকচ করে দেয়।
তালেবানের রাজনৈতিক দপ্তরের মুখপাত্র মোহাম্মাদ নাঈম ওই প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে বলেছেন, এখন আর আলোচনায় বসার কোনো সুযোগ নেই। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) রাতে নাঈম বলেন, আহমাদ মাসুদ আমাদের শান্তির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার পর এখন আর আলোচনায় বসার কোনো সুযোগ নেই।
 
এর কয়েক ঘণ্টা আগে আহমাদ মাসুদ ফেসবুকে পোস্টে বলেছিলেন, পাঞ্জশির, কাপিসা, পারওয়ান ও আন্দারাবে তালেবান হামলা বন্ধ করলে প্রতিরোধ ফ্রন্টও যুদ্ধ বন্ধ করতে রাজি আছে। তিনি এ ব্যাপারে তালেবানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে নিজের প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেন।
 
এর আগে গত কয়েকদিন ধরে তালেবান ঘোষণা করে আসছিল যে, পাঞ্জশিরের কমান্ডারদের সঙ্গে আলোচনা ব্যর্থ হয়েছে। ফলে সামরিক শক্তি প্রয়োগ করে ওই উপত্যকা দখল করা হবে।
 
গত পাঁচদিন ধরে তালেবানের পক্ষ থেকে পাঞ্জশির উপত্যকা দখলের অভিযান চলছে। গতকাল রোববার বিকেলে তালেবান দাবি করেছে, তারা ওই উপত্যকার প্রায় পুরো অংশ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিয়েছে।

Sharing is caring!