• ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:৩০
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

পা দিয়ে লিখে ঢাবির ভর্তিযুদ্ধে অংশ নিলেন সুরাইয়া

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ৩, ২০২১, ১৪:০৭ অপরাহ্ণ
পা দিয়ে লিখে ঢাবির ভর্তিযুদ্ধে অংশ নিলেন সুরাইয়া

ছবি: সংগৃহীত

শেরপুর প্রতিনিধি ।।
স্বপ্ন যদি হয় আকাশ ছোঁয়া, তখন কোনও প্রতিবন্ধকতাই বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না। ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ময়মনসিংহের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পা দিয়ে লিখে তারই প্রমাণ দিলেন শেরপুরের সুরাইয়া জাহান।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে শেরপুর থেকে ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে আসেন সুরাইয়া জামান। হাত অকেজো থাকলেও, পা দিয়ে লিখে অংশ নিয়েছেন ভর্তি পরীক্ষায়।
পরিবারের আশা, মেয়ে উত্তীর্ণ হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি যুদ্ধে। হবে বড় অফিসার। সুরাইয়া জামান শেরপুর সদরের কামারিয়া ইউনিয়নের আন্ধারিয়া সুতিরপাড় গ্রামের মো. ছফির উদ্দিনের মেয়ে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আর দশজন শিক্ষার্থীর মতো চেয়ার বেঞ্চে বসে নয় বরং পরীক্ষা কেন্দ্রের ভেতরে দেওয়ালের একটি কোণে পাটাতনের ওপর বসে পরীক্ষা দিচ্ছেন সুরাইয়া। হাতে লিখতে না পারলেও নিজের পাকে হাতের মতো ব্যবহার করে পরীক্ষা দিচ্ছেন তিনি। পরীক্ষায় তিনি আরও ১০ জন শিক্ষার্থীকে ঠিকই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন।
পরীক্ষার হলে যখন প্রতিবন্ধী মেয়ে পরীক্ষা দিচ্ছেন, তখন বাহিরে অপেক্ষায় ছিলেন মা র্মুশিদা ছফির। তিনি বলেন, মেয়েকে নিয়ে আজকের এই অবস্থানে আসার পেছনের গল্পটাও সংগ্রামের। তিন মেয়ের মধ্যে সুরাইয়া প্রথম। মেয়েকে কখনও অবহেলার চোখে দেখেনি পরিবার।
আমার মেয়েটা জন্মগত প্রতিবন্ধী হলেও তার জন্য কখনও মন খারাপ করেনি। সে এসএসসি এবং এইচএসসিতে ভালো ফলাফল করেছে। এবার সে পা দিয়ে লিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। লেখাপড়া করে সে দেশ ও জাতির সেবা করুক এটাই আমার চাওয়া।
তিনি জানান, সুরাইয়া মেধাবী একজন শিক্ষার্থী। শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে পেছনে ফেলে তিনি এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৪.১১ এবং এইচএসসিতে ৪.০০ পেয়েছেন।

Sharing is caring!