• ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:৫১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেলেই খুলবে স্কুল

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত আগস্ট ২৪, ২০২১, ১৮:২৫ অপরাহ্ণ
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেলেই খুলবে স্কুল

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। ফাইল ছবি

ঢাকা অফিস ।।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেছেন, স্কুল খোলার সব প্রস্তুতি আমাদের আছে। এ মুহূর্তে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিলে আগামীকালই আমরা সরকারি প্রাইমারি স্কুলগুলো খুলে দিতে পারি।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ক্লাস থ্রি-ফোর-ফাইভ সপ্তাহে দুই দিন করে ক্লাস নেয়ার পরিকল্পনা আছে। এছাড়া প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে একদিন করে করবো। এভাবে আমরা করতে চাচ্ছি। আমাদের কারিকুলাম অনুযায়ী সর্ট একটা সিলেবাসও চিন্তা করছি।

সমাপনী পরীক্ষার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, সমাপনী পরীক্ষা সশরীরে হবে নাকি মূল্যায়নভিত্তিক হবে, এই সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি অনুযায়ী নেয়া হবে। এরকম যদি পরিবেশ থাকে তাহলে পরীক্ষা না নিয়ে আমরা গতবার যেভাবে মূল্যায়ন করেছি সেভাবে করব। আমরা তো ওয়ার্ক শিট দিচ্ছি। এই ওয়ার্ক শিটগুলোই আমরা মূল্যায়ন করব। এই শিট অনুযায়ী বাচ্চারা কে কী করলো, সেভাবেই আমরা মূল্যায়ন করব।

স্কুল খুললে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি স্কুল খুলতে পারি তাহলে অবশ্যই স্বাস্থ্যসম্মতভাবে পরীক্ষা নেব। যদি পরিবেশ ভালো থাকে তাহলে সেপ্টেম্বর বা অক্টোবরেও আমরা স্কুল খুলে দিতে পারি। যেকোনো দিন স্কুল খোলার জন্য আমরা প্রস্তুত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিলেই আমরা স্কুল খুলে দেবো।প্রতিমন্ত্রী বলেন, এরইমধ্যে ৮৫ ভাগ শিক্ষকদের করোনাভাইরাসের টিকা দেয়ার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। বাকিদেরও দ্রুত শেষ করা হবে।এর আগে করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে এলে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দ্রুত খুলে দেয়ার উদ্যোগ নিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দেয়। এরপর ১৭ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়। এখন পর্যন্ত গত ১৭ মাসে দফায় দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি বাড়ানো হয়। করোনা সংক্রমণ অব্যাহত থাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান সাধারণ ছুটি আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

Sharing is caring!