• ২১শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৫৬
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ফেইসবুকে ফেইসঅ্যাপ জ্বরে ভুগছে সবাই

bmahedi
প্রকাশিত জুলাই ১৮, ২০১৯, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ
ফেইসবুকে ফেইসঅ্যাপ জ্বরে ভুগছে সবাই ———– মোঃ মনির হোসেন, ( Monir Hossen) সহকারী শিক্ষক ( বিজ্ঞান) ভীমখালী উচ্চ বিদ্যালয়,জামালগঞ্জ। আসুন আমরা দুদিন ধরে মিডিয়া শিরোনাম হয়েছে এরকম কিছু বিষয়ের দিকে নজর দিয়ে আসি। সুনামগঞ্জে বন্যায় এক লাখ ত্রিশ হাজার পরিবার পানি বন্ধি। সুনামগঞ্জে পর পর বজ্রপাতে পিতা ও পুত্রের মৃত্যু। এমপি পুত্রের হাত থেকে বাচাঁতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চাওয়ার পর হত্যা মামলায় স্ত্রী মিন্নি গ্রেফতার। নোয়াখালীর এমপি একরামুল সাহেব পার্কে দলবল নিয়ে হানা দিয়ে বিশ্রামরত ছেলেমেয়েদের পুলিশের হতে তুলে দিয়েছেন। যশোরে কিংস হাসপাতালে এক প্রসূতির সিজার করার সময় নবজাতকের মাথা কেটে ফেলেছেন ডাক্তার আতিকুর রহমান নামের এক চিকিৎসক। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে সুপার ওভারে ওয়ার্ন্ডকাপ ২০১৯ ইংল্যান্ড বিজয়ী। এরকম আরও অনেক ঘটনা আছে। এসব ঘটনাকে পিছনে ফেলে সবচেয়ে আলোচিত শিরোনামটি হল – ফেইসবুকে টেন্ড চলছে এখন “বুড়ো হওয়ার “। নিউজ ফিডে ঢুকলেই দেখা যাচ্ছে কারও না কারও বুড়ো হওয়ার ছবি। ফেইসঅ্যাপ বিভিন্ন ফিন্টারের কারণে ভাইরাল হয়েছিল অনেক আগেই। এবার নতুন ফিল্টার হিসেবে যুক্ত হয়েছে ওল্ড ফিল্টার। ৬০ বছর বয়স হলে আপনার চেহারা কেমন হবে তা ওই ফিল্টারের মাধ্যমে তৈরী করা যায়। তবে এই বিষয়টি নিয়ে ব্যবহারকারীদের মধ্যে নানা রকম আলোচনা সমালোচনা পরিলক্ষিত হয়েছে। এই অ্যাপস নিয়ে সারা দেশের মতো সিলেটে ও পাল্লা দিয়ে বেড়েছে বুড়ো হওয়ার প্রতিযোগিতা। এ প্রতিযোগিতায় যুক্ত হচ্ছেন ডাক্তার, রাজনীতিবিদ, চাকরিজীবী,শিক্ষক, সাংবাদিক, ছাত্র/ছাত্রী,ব্যবসায়ী এমনকি গৃহকর্মীরাও বাদ যান নি। ফেইসবুকে বুড়ো হওয়ার টেন্ড : এই ফেইসঅ্যাপ ব্যবহার করা কি নিরাপদ? আসুন এ এবার নিরাপত্তার বিয়ষটি নিয়ে খতিয়ে দেখা যাক। অজান্তেই নিজের আইডিটা ঝুঁকিতে ফেলছেন অনেকেই। আসুন এবার দেখি কিভাবে আপনার আমার আইডি নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পরছে অ্যাপটিতে লগইন করার পর যখন চেহারা বদল করতে যায় ব্যবহারকারীরা তখন তার ফটো গ্যালারির অ্যাক্সেস চায়। একই সঙ্গে ফেইসবুকের সঙ্গে অ্যাপটি ব্যবহার করতে চাইলে বা ফেইসবুক থেকে ছবি নিতে চাইলে সেটিরও অনুমতি দিতে হয় ব্যবহারকারীকে। এর ফলে অ্যাপটি চাইলেই ব্যবহারকারীর ফটো গ্যালারি নিজেদের জন্য নিয়ে নিতে পারে। একইভাবে ফেইসবুকের আইডি-পাসওয়ার্ডও নিতে পারে। এটা একটা নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি করে। সংবাদ মাধ্যম বিজিআর গত ৩ এপ্রিল একটি খবরে প্রকাশ করে, ফেইসবুকে তৃতীয় পক্ষ হয়ে কাজ করে এমন কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ৫৪ কোটি ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করে দিয়েছে। ওই ব্যবহারকারীদের সেসব তথ্য হাতিয়ে নিয়ে তৃতীয় পক্ষ একটি ক্লাউডে জমাও করেছে। যার মধ্যে অন্তত ২২ হাজার ব্যবহারকারীর ফেইসবুকের পাসওয়ার্ডও ফাঁস করা হয়েছে। নিরাপত্তা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান আপগার্ড বলছে, মেক্সিকো ভিত্তিক কালচারা কালেক্টিভা নামের ওই প্রতিষ্ঠান অন্তত ১৪৬ গিগাবাইট তথ্য নিজেদের কব্জায় নিয়েছে। এসব তথ্যের মধ্যে রয়েছে ব্যবহারকারীর ফেইসবুক আইডি, পাসওয়ার্ড, কমেন্ট, লাইক, রিঅ্যাক্শন। ওই ঘটনার পর ফেইসবুকের এক মুখপাত্র বলছেন,আমরা ডেভেলপারদের সঙ্গে করে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে কাজ করছি। কিন্তু তৃতীয় পক্ষের কিছু অ্যাপ এমন সব কাজ করছে যাতে ফেইসবুক বিব্রত হচ্ছে। ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ফেইসবুকের অন্তত পাঁচ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য হাতিয়ে নিয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠে। পরে একইভাবে আরও কিছু প্রতিষ্ঠান ফেইসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য হাতিয়ে নেয়।কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাও ফেইসুবকের সঙ্গে তৃতীয় পক্ষ হিসেবে কাজ করছিল তখন। ফেইসঅ্যাপ নিয়েও ২০১৭ সালে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ তোলেন অনেকেই। নিরাপত্তা স্বার্থে আসুন ফেইসঅ্যাপ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকি,নিজের যৌবনকে ধরে রাখি ও নিজের আইডি সুরক্ষিত রাখি।

Sharing is caring!