• ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:৩১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে কারা ছিল উদ্‌ঘাটনে কমিশন গঠনের সিদ্ধান্ত

bmahedi
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৯, ১৭:২৯ অপরাহ্ণ
বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে কারা ছিল উদ্‌ঘাটনে কমিশন গঠনের সিদ্ধান্ত
নুরুল ইসলাম ।। 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে কারা ছিল তা উদ্‌ঘাটনে কমিশন গঠনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা জানান।

‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার দণ্ডিত পালাতক খুনিদের দেশে ফেরত আনার পদক্ষেপ’ শীর্ষক এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে কেন্দ্রীয় ১৪ দল। এতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আমরা পলাতক খুনিদের খুঁজে বের করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। আর যে দুজনের অবস্থান জানা আছে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, নূর চৌধুরীকে কানাডা সরকার কোনো রাজনৈতিক আশ্রয় দেয়নি। তবে সে দেশের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের কারণে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কাউকে তারা ফেরত দেয় না। তবে আমরা আশাবাদী কূটনৈতিক ও আইনগত মাধ্যমে আমরা তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারবো। আমরা সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

আইনমন্ত্রী বলেন, রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র আগের চেয়ে পজিটিভ কন্ডিশনে আছে। আমরা তাকে ফিরিয়ে আনা নিয়ে আশাবাদী। এসময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে কারা ছিল তা উদ্‌ঘাটনে কমিশন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই কমিশনে কারা থাকবে এবং এর কার্যপরিধি কী হবে তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেবেন। তবে কমিশনের আওতায় বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জাতীয় চার নেতা হত্যাকাণ্ডের বিষয়টিও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একেএম আবদুল মোমেন বলেন, এখনো পর্যন্ত হত্যাকারীদের তিনজনের সঠিক অবস্থান জানি না। তবে আমরা দুজনের অবস্থান জানি তারা কোথায় আছেন। আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী আয়োজনের আগেই তাদের দণ্ড কার্যকরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। এতে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম সভাপতির বক্তব্যে বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে চিহ্নিত ও দণ্ডিত খুনিদের রায় বাস্তবায়ন ও হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সকলের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করতে হবে। তিনি বলেন, জনগণের সামনে এই সকল চিহ্নিত খুনি ও এই ঘটনার ইন্ধনদাতাদের মুখোশ উন্মোচিত করতে হবে।

আলোচনা সভায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক উপদেষ্টা জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Sharing is caring!