• ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:০৮
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

বালিয়াকান্দিতে চাকরির কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১, ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
বালিয়াকান্দিতে চাকরির কথা বলে লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ
মেহেদী হাসান রাজু, রাজবাড়ী। ।
রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের ইরশালবাড়ী গ্রামের বাবুরাম মন্ডলের ছেলে বিজন কুমার মন্ডলকে কৃষি অধিদপ্তরের পিয়ন পদে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
টাকা ফেরত না দিয়ে উল্টা আদালত হয়রানীমুলক মামলা দায়ের করার অভিযোগ উঠেছে।
ভুক্তভাগী বিজন কুমার মন্ডল অভিযোগ করে বলেন, বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের বকচর গ্রামের মোঃ কিয়ামুদ্দিন শেখের ছেলে ছত্তার শেখ কৃষি অধিদপ্তরে সরকারী চাকুরী দেওয়ার কথা বলে প্রায় ২ বছর পুর্ব নগদ ২ লক্ষ টাকা গ্রহণ করাসহ ৩শত টাকার সাদা নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর গ্রহণ করে।
চাকুরী দিতে না পারার কারণে আমি টাকা ফেরত চাইলে নানা তালবাহানা করে ঘোরাতে থাকে। এ বিষয়টি নিয়ে বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়ন পরিষদে লিখিত অভিযোগ দায়ের করি। গত ২০২০ সালর ১৫ অক্টাবর বালিয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নায়েব আলী শেখ শুনানীর দিন ধার্য্য করেন।
ছত্তার শেখ নোটিশ গ্রহণ না করার কারণে বালিয়াকান্দি  সদর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডর সদস্য মো আলতাফ হোসেন বাবলু ও ৬ নং ওয়ার্ডর সদস্য তাছির উদ্দিন মোল্লা ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য দায়িত্ব প্রদান করেন।
এ বিষয়ে ২জন ইউপি সদস্য সরেজমিন ও স্বাক্ষীদের নিকট থেকে জানতে পারেন চাকুরী দওয়ার কথা বলে আমার নিকট থেকে ২লক্ষ টাকা গ্রহণ করেছে এবং চেয়ারম্যানকে লিখিত ভাবে অবহিত করেন। বিষয়টি জানতে পেরে আমার নিকট থেকে চাকুরী দেওয়ার নামে সাদা স্ট্যাম্প নেওয়া থাকার কারণে আমাকে হয়রানীমুলক ভাবে রাজবাড়ী আদালতে ৭লক্ষ টাকার দাবীতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে উল্টা হয়রানী করেছে।
আমার ফোনে থাকা তার কথাবার্তার রেকর্ড থাকার বিষয়টি জানতে পেরে কৌশলে ভয়ভীতি দখিয়ে ছিনিয়ে নেয়।  বিষয়টি স্থানীয় লোকজন অবগত আছেন।
আমি বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রতারকের শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
তিনি আরো বলেন, শুধু আমি নয় আমার মতো এলাকার অনেক বেকার যুবকের চাকুরী দওয়ার কথা বলে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে প্রতারনা করে আসছে।
এ বিষয় ছত্তার শেখের সাথে মুঠাফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি টাকা নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করাসহ উল্টা তিনি ৭লক্ষ টাকা পাবন বল দাবী করাসহ আদালত মামলা দায়র করেছে বলেও প্রকাশ করেন।

Sharing is caring!