• ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৪১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

বিরোধী দল শূন্য করতে কাজ করছে সরকার

bmahedi
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ণ
মো: নজরুল ইসলাম ।।

বিরোধী দল শূন্য করতে সরকার কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  তিনি অভিযোগ করে বলেছেন, ‘শুধু বিএনপি নয়, দেশে যেন কোনো বিরোধী দল না থাকে, ভিন্নমত না থাকে, সব বিলীন হয়ে যায়, সেজন্যই পরিকল্পিতভাবে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’ গতকাল বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের এক যৌথসভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ১২ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, গত বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে বলেছেন, আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না, করলে বিএনপির অস্তিত্ব থাকত না। এই কথাটি বলতে তিনি কি এটাই বোঝাতে চেয়েছেন যে, আসলে তারা অস্তিত্ব রক্ষা না করার জন্যই কাজ করে যাচ্ছেন?’ ‘ছাত্রদলের কাউন্সিলে একজন সভাপতি প্রার্থীর বাবা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত’Ñ এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গণতান্ত্রিক দেশে এমনটা থাকতেই পারে যে ছেলে এক রাজনীতি করেন আর বাবা আরেক রাজনীতি করেন। আমার ছাত্রজীবনে আমার বাবা একটা রাজনীতি করতেন আর আমি একটা রাজনীতি করতাম। কখনো কোনো সমস্যা হয়নি।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন মানববন্ধন পর্যায়ে থাকবে কি না এমন এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এটা তো এখন বলতে পারব না, তবে মানববন্ধন হবে, এরপর নতুনভাবে সুনির্দিষ্টভাবে আন্দোলন হবে।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে। তার প্রাপ্য জামিন থেকে তাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। একই ধরনের মামলায় অন্য যারা সাজা পেয়েছেন তারা জামিনে আছেন। সে ক্ষেত্রে খালেদা জিয়ার বিষয়ে এটাকে সম্পূর্ণ দলীয়করণের পর্যায়ে নিয়ে গেছে সরকার।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, যুবদল সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম মাহতাব, তাঁতী দলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, ওলামা দলের সভাপতি মাওলানা শাহ মো. নেসারুল হক প্রমুখ।

১২ দিনের কর্মসূচি : বিকেলে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১২ দিনের কর্মসূচির বিস্তারিত জানানো হয়। ১২ দিনের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছেÑ ১৫ সেপ্টেম্বর (রবিবার) জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের উদ্যোগে মানববন্ধন, ১৬ সেপ্টেম্বর (সোমবার) জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে মানববন্ধন, ১৭ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের উদ্যোগে মানববন্ধন, ১৮ সেপ্টেম্বর (বুধবার) অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স-বাংলাদেশের (এইবি) উদ্যোগে মানববন্ধন, ১৯ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) উদ্যোগে মানববন্ধন ও ২০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) জাতীয়তাবাদী যুবদলের উদ্যোগে মানববন্ধন (দেশব্যাপী)। এরপর ২১ সেপ্টেম্বর (শনিবার) জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের উদ্যোগে মানববন্ধন, ২২ সেপ্টেম্বর (রবিবার) জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে মানববন্ধন (দেশব্যাপী), ২৪ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের উদ্যোগ মানববন্ধন, ২৫ সেপ্টেম্বর (বুধবার) জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের উদ্যোগে মানববন্ধন, ২৭ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) অ্যাগ্রিকালচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (অ্যাব) উদ্যোগে মানববন্ধন এবং ২৮ সেপ্টেম্বর (শনিবার) জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে। তবে এসব কর্মসূচির সময় বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়নি।

Sharing is caring!