• ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:০৪
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীর বিরুদ্ধে বেনামি অভিযোগকারী আহসান আলীকে আটকের জোর দাবি করেছে সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশন –

bmahedi
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯, ১৮:১৮ অপরাহ্ণ
তানজীর মহসিন ।। 
বেনাপোলে স্এিন্ড এফ এজেন্টকে জড়িয়ে কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীর বিরুদ্ধে বেনামি অভিযোগ করার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার সকালে সংবাদ সম্মেলন করেছে বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশন।
এসোসিয়েশনের নিজস্ব অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব নুরুজ্জামান।
নেতৃবৃন্দ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আহসান আলী নামে এক ব্যক্তি নিজেকে দুদকের সহকারী পরিচালক পরিচয় দিয়ে সরকারের ২০ লক্ষ টাকার রাজস্ব ফাঁকি দেয়ার জণ্য কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীকে চাপ প্রয়োগ করে।
পরবর্তীতে মিথ্যা ঘোষনায় আমদানি করা ২৫০০ কেজি ভায়াগ্রার চালান আটকের পর তা ছেড়ে দেয়ার জণ্য কাস্টমস কমিশনারকে চাপ প্রয়োগ করে ব্যর্থ হয়ে কমিশনারের বিরুদ্ধে দুদুকে বেনামী অভিযোগ দায়ের করে। কমিশনারকে আহসান আলী কর্তৃক চাপ প্রয়োগের একটি দৃশ্য গোপনে ভিডিও করে তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল করা হয় বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।
মিথ্যা অভিযোগে কমিশনারকে সার্বক্ষনিক ব্য¯ত রাখায় বেনাপোল বন্দরে শুরুহয় ব্যপক কড়াকড়ি। ফলে বানিজ্যক পণ্য অমদানি এক রকম বন্ধ হয়ে যায় এ বন্দর দিয়ে। ৮০০ কোটি টাকার রাজস্ব ^ ঘাটতি দেখা দেয় চলতি আগস্ট-১৯ পর্যন্ত। আমদানি কারকরা অন্যান্য বন্দরে চলে যায়।
ভারতের সাথে প্রতি বছর ৩০ হাজার কোটি টাকার আমদানি রফতানি বানিজ্য হয় এই বন্দর দিয়ে। সরকার এ বন্দর থেকে প্রতি বছর সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করে থাকে।বেনাপোল বন্দরে ব্যবসা বান্ধব পরিবেশ বজায় রাখতে কাস্টমস কমিশনার , সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশন,সকল স্টেকহোল্ডার এবং ¯’ানীয় প্রশসন অকাšত পরিশ্রম করে যা”েছ।

রাজস্ব আদায়ে ব্যস্ত কমিশনারকে হয়রানি করার কারণে বেনাপোল বন্দরের স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যহত হ”েছ। যার কারনে বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারিরা হয়রানির শিকার হ”েছ। বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি রফতানি বানিজ্য গতিশীল করতে কাস্টমস কমিশনারকে অহেতুক হয়রানি বন্ধে তদবিরবাজ আহসান আলীর কে আটকের জোর দাবি জানানো হয়।

সাংবাদিক সন্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্জ নুরুজ্জামান। সাংবাদিকদের বিভন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক এমদাদুল হক লতা, সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শামছুর রহমান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মহসিন মিলন,জামাল হোসেন, কাস্টমস বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, কামাল উদ্দিন শিমুল সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
মহসিন মিলন। বেনাপোল অফিস। তারিখ:- ১৯.৯.১৯
মোবা–০১৭১১৮২০৩৯৪

Sharing is caring!