• ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ২:১৩
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন পরিষেবা ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস বুধবার : কাস্টমস কমিশনারের কৃতঞতা প্রকাশ

bmahedi
প্রকাশিত জুলাই ১৬, ২০১৯, ২০:৩৩ অপরাহ্ণ
বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন পরিষেবা ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস বুধবার : কাস্টমস কমিশনারের কৃতঞতা প্রকাশ

রোকনুজ্জামান রিপন।।

আগামীকাল বুধবার উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন পরিষেবা ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’। এদিন বেলা সাড়ে এগারটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেন চলাচলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধন শেষে ট্রেনটি বেলা একটার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবে। যাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করে বেনাপাল-ঢাকা রুটের এই ট্রেনটি চলবে সপ্তাহে ছয় দিন। সাড়ে সাত ঘণ্টায় পৌঁছানো যাবে ঢাকায়।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন পরিষেবা বেনাপোল এক্সপ্রেস’র শুভ উদ্বোধনে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীকে সশ্রদ্ধ ধন্যাবাদ ও কৃতঞতা জানিয়েছেন।সেই সাথে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেস্টা ড. মো:  মশিউর রহমানকে।

কাস্টমস ও সিএন্ডএফ  এজেন্টস এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, বেনাপোলে বুলেট ট্রেন দেয়ার জন্য আবেদন জানানো হবে। ; মাননীয় অর্থউপদেষ্টার প্রতি অনুরোধপত্রের খসড়া চুড়ান্ত করা হয়।৭ আগস্ট সিএন্ডএফ সভাপতি মফিজুর রহমান সজন মাননীয় অর্থ উপদেষ্টাকে পত্র দেন;। জবাবে ৩ সেপ্টেম্বর মাননীয় উপদেষ্টা সিএন্ডএফ সভাপতিকে পত্র দিয়ে প্রস্তাব বিবেচনার আশ্বাস দেন। বুলেট ট্রেন ব্যয় ও সময় সাপেক্ষ বিধায় চলমান থাকে বেনাপোলে সরাসরি ট্রেন সার্ভিস চালুর চেষ্টা; ১০ এপ্রিল পিএমওতে মাননীয় উপদেষ্টা কমিশনার ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের ডেকে নেন। রেলের ডিজি মহোদয়ও ছিলেন;। সভায় বন্ধন ট্রেনের সংখ্যা ও বিরতি বাড়ানোর আলোচনার সাথে বেনাপোলে নতুন এক্সপ্রেস ট্রেন দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়; নতুন বগি আমদানি করা হয় শুধু মাত্র বেনাপোলের জন্য। এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাংক’র অর্থায়নে এই রেল চালু করা হচ্ছে।

রেল চালুর জন্য বেনাপোল বাসী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, মাননীয় রেল মন্ত্রী, যশোর-১ আসনের সংসদ শেখ আফিল উদ্দিন ও বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীর প্রতি বেনাপোল বাসী কৃতঞতা প্রকাশ করেছে।

আমাদের ও সমগ্র বেনাপোলবাসীর সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় রেলমন্ত্রী প্রতি। বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা ও শ্রদ্ধা মাননীয় অর্থ উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান স্যারের প্রতি, যাঁর ব্যক্তিগত আগ্রহ ও হস্তক্ষেপে এ ট্রেন প্রাপ্তি ত্বরান্বিত হয়েছে। ধন্যবাদার্হ বেনাপোল সিএন্ডএফ এসোসিয়শন নেতৃবৃন্দ, যাদের ত্যাগ ও পরিশ্রম দৃশ্যমান ছিল। ধন্যবাদ সর্বস্তরের বেনাপোলবাসী।

আজ সবে এক্সপ্রেস ট্রেন এলো! একদিন বুলেট ট্রেনও আসবে। এই বেনাপোলে। বেনাপোল সিএন্ডএফ ও কমিশনারের এ যজ্ঞ বিস্মৃত হোক।

শুভকামনা বেনাপোল এক্সপ্রেস!
শুভকামনা বেনাপোলবাসী!
শুভ প্রত্যাশা বেনপোল উড়াল রেল!

 

Sharing is caring!