• ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৪৭
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ভারতে করোনায় একদিনে রেকর্ড ৩২৯৩ জনের মৃত্যু

bmahedi
প্রকাশিত এপ্রিল ২৯, ২০২১, ১৩:৪৭ অপরাহ্ণ
ভারতে করোনায় একদিনে রেকর্ড ৩২৯৩ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ## করোনাভাইরাস মহামারিতে ভারতের পরিস্থিতি বর্ণনাতীত। দেশটিতে একদিনে শনাক্ত ও মৃত্যুতে নতুন রেকর্ড হয়েছে। দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৬০ হাজার ছাড়িয়ে গেল। গতকাল মঙ্গলবারের (২৮ এপ্রিল) তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩৭ হাজার বেশি। 

ভারতে আগে কখনো এক দিনে এত করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি। শুধু তা-ই নয়, বিশ্বের কোনো দেশে এখন পর্যন্ত একদিনে এত করোনা রোগী আগে কখনো শনাক্ত হয়নি।

পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ২৯৩ জনের। করোনাভাইরাসের জেরে এই প্রথম ভারতে একদিনে মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ছাড়াল। সেই সাথে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যাও ২ লাখ পার হলো। গত সাড়ে ৩ মাসে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৫০ হাজারের বেশি মানুষের।

আজ বুধবার (২৮ এপ্রিল) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লাখ ৬০ হাজার ৯৬০ জন। সর্বশেষ এই সংখ্যা নিয়ে মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৭৯ লাখ ৯৭ হাজার ২৬৭ জনে।

আক্রান্ত বৃদ্ধির সাথে সাথে বাড়ছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় রোগী বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৯৬ হাজার। এর ফলে মোট সক্রিয় রোগী রয়েছে ২৯ লাখ ৭৮ হাজার ৭০৯ জন। এই বিপুল সংখ্যক সক্রিয় রোগীকে স্বাস্থ্য পরিষেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে ভারতের হাসপাতালগুরো। রোজ অনেক রোগী মারা যাচ্ছেন শুধুমাত্র অক্সিজেনের অভাবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭ লাখের বেশি। সংক্রমণ হারও ছাড়িয়েছে ২০ শতাংশ। অর্থাৎ দেশে করোনা পরীক্ষা হওয়া  পাঁচজনের মধ্যে একজনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

এর মধ্যেই দেশ জুড়ে চলছে টিকাকরণ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে টিকা নিয়েছেন ২৫ লাখ ৫৬ হাজার ১৮১ জন। ১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার পর মোট টিকার ডোজ দেয়া হয়েছে ১৪ কোটি ৭৮ লাখ ২৭ হাজার ৩৬৭।

ভারতে টানা সাতদিন ধরে তিন লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। তার আগে ১৫ এপ্রিল থেকে দেশটিতে প্রতিদিন দুই লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছিল। আর টানা এক সপ্তাহ ধরে ভারতে দুই হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মারা যাচ্ছিল। আজ দৈনিক মৃত্যু তিন হাজার ছাড়াল। -আনন্দবাজার পত্রিকা

Sharing is caring!