• ২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:০২
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

ভারতে কাশ্মীর ছাড়ছেন ইরফানসহ ক্রিকেটাররা

bmahedi
প্রকাশিত আগস্ট ৪, ২০১৯, ২২:২৯ অপরাহ্ণ

কালিপদ দাস ।।কোলকাতা ব্যুরো।।

জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। যে কারণে কাশ্মীরে অবস্থানরত সব ক্রিকেটারদের দেশ ত্যাগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

ভারতীয় ক্রিকেটার পারভেজ রসুলও নিশ্চিত করে বলেছেন, কাশ্মীর স্টেডিয়ামে অনূর্ধ্ব-১৯ ও অনূর্ধ্ব-১৬ দলের ক্রিকেটারদের তাদের কার্যক্রম বন্ধ করে নিজ নিজ জায়গায় ফিরে যেতে বলা হয়েছে।

শুধু ক্রিকেটারই নয়! বিরাজমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতির কারণে জম্মু ও কাশ্মীর সরকার অমরনাথ যাত্রা বন্ধ করে দিয়েছেন। এবং তীর্থযাত্রীদের এবং পর্যটকদের তাদের বাড়িতে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করেছেন। গত শুক্রবার অমরনাথ যাত্রাপথ থেকে স্নাইপারসহ বিপুল পরিমাণ বোমা উদ্ধার করা হয়।

জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে যুক্ত সব সাপোর্টিং স্টাফসহ শতাধিক ক্রিকেটারকে বাড়ি ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার ইরফান পাঠান বর্তমানে কাশ্মীর ক্রিকেট দলের মেন্টর। দলটির কোচ হিসেবে আছেন মিলাপ মেওয়াদা, ট্রেনার সুদর্শন ভিপি। ইরফান পাঠান এবং নির্বাচক মণ্ডলীর যারা বাইরের রাজ্য থেকে এসেছেন, তাদের রোববারের মধ্যেই ফিরে যেতে বলা হয়েছে।

জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক হুসেইন বুখারি জানিয়েছেন, ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে পাঠান এবং বাকিদের জানানো হয়েছে চলে যেতে। রোববারের মধ্যেই তারা রাজ্য ছাড়বেন। যে নির্বাচকরা এই রাজ্যের নন, তাদেরও নিজের রাজ্যে চলে যেতে বলা হয়েছে।

তিনি আরও জানিয়েছেন যে, ইতিমধ্যেই ১০১-১০২ জন ক্রিকেটার, যারা শের-ই-কাশ্মীর স্টেডিয়ামে প্র্যাকটিস করছিলেন, তাদের বাড়ি ফেরত পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। বুখারি এও জানিয়েছেন যে, এই মুহূর্তে কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে তারা পুরোপুরি নিশ্চিত নন। তাই তারা ক্রিকেটীয় কর্মসূচি আপাতত বন্ধ রাখছেন।

প্রসঙ্গত, ১৭ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে দুলীপ ট্রফি। তারপর রঞ্জি এবং বিজয় হাজারে ট্রফিও রয়েছে। তার আগে এই রকম পরিস্থিতি জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেটের জন্য বড় ক্ষতিই হয়ে গেল।

Sharing is caring!