• ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:২৫
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

মাদক সেবনকারীদের স্বাভাবিক জীবনের ফিরিয়ে আনতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ৭, ২০২১, ১৬:৪৪ অপরাহ্ণ
মাদক সেবনকারীদের স্বাভাবিক জীবনের ফিরিয়ে আনতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেলোয়ার হোসেন, ঢাকা ব্যুরো।। 
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এম পি বলেছেন, শুধু সরকার নয় জনগণকে মাদক নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে আসতে হবে । মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম হুমকির মধ্যে পড়বে । মাদকের চাহিদা মাদকের বাজার এবং এর উৎপাদন সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে মাদক সেবনের পরিমাণ বা কমবে । সবাইকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে হবে । মাদক সেবনকারীদের স্বাভাবিক জীবনের ফিরিয়ে আনার জন্য আমাদের সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন । পরিবার থেকে শুরু করে রাষ্ট্রের সকল পর্যায়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এগিয়ে আসতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাদক নিয়ন্ত্রণে সবসময় জিরো টলারেন্স গ্রহণ করেছেন । আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে মাদকাসক্তদের ফিরিয়ে আনার জন্য । তিনি আজ সকালে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের রিভার ভিউ আবাসিক এলাকায় নির্মিত বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মানের মাদকাসক্তি নিরাময় ও মানসিক স্বাস্থ্য পরামর্শ কেন্দ্র “ওয়েসিস “এর শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন । অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি বলেন, আজকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সকলের প্রচেষ্টায় করোনা ২ দশমিক ৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে । আমাদের দেশে করোনা নিয়ন্ত্রণে এসেছে । করোনার নিয়ন্ত্রণে আসলেও আত্মতুষ্টির কোন কারণ নেই । করণা নিয়ন্ত্রণে সকলকে একসাথে এগিয়ে আসতে হবে । করোনা নিয়ন্ত্রণে সবাইকে নিয়ম মেনে চলতে হবে । পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার কারণে করোনার পয়েন্টার নিম্নমুখী ।তিনি আরো বলেন , মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণে পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের সবাইকে খবর রাখতে হবে নজর রাখতে হবে এবং যারা মাদক দ্রব্য গ্রহণ করেন তাদেরকে ফিরিয়ে আনার জন্য ঐক্যবদ্ধ ভাবে চেষ্টা করতে হবে । তাহলে আমরা সমাজের শান্তি পাব রাষ্ট্রের কল্যাণ হবে। মাদকদ্রব্যের ব্যবহারের কারণে অর্থনৈতিক ক্ষতি হচ্ছে ।তিনি কেরানীগঞ্জে স্থাপিত ওয়েসিস মাদক নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রের সার্বিক সহযোগিতা আশ্বাস দেন।তিনি বলেন ,আগামী স্বাধীনতা দিবসে আরো বড়ো ধরনের করণা ভ্যাকসিনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে ।কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে করণা নিয়ন্ত্রণে । অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট এর চেয়ারম্যান ড. বেনজীর আহমেদ , বিপিএম-বার । বক্তব্য রাখেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এমপি । স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম । মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল । স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডিআইজি ঢাকা রেঞ্জ হাবিবুর রহমান বিপিএম পিপিএম বার । অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ ।দেশে এই প্রথম বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মানের মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র ও মানসিক স্বাস্থ্য পরামর্শ কেন্দ্র “ওয়েসিস “ নামের প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলা হয় । আধুনিক সকল সুবিধা সম্বলিত এই মাদকাসক্তি কেন্দ্র রোগীদের যাবতীয় সুচিকিৎসার জন্য উন্নত মানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে । সাততলা বিশিষ্ট ৬০ শয্যার এই আধুনিক মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রটি খোলা থাকবে ২৪ ঘণ্টা। যেখানে ২২টি কক্ষের ১৬টিতে ৪৬টি শয্যা পুরুষদের জন্য । ১৪টি শয্যা থাকছে নারীদের জন্য । সব ওয়ার্ড বা কক্ষ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত । ছাদে রয়েছে পরিস্কার পরিছন্ন সবুজ গার্ডেন । রয়েছে ব্যায়ামাগার। আছে লাইব্রেরি। অত্যাধুনিক এই মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রটির অন্যতম চমক হচ্ছে গ্যাস ক্রমোটোগ্রাফি মেডিকেল ইকুইপমেন্ট। এই মেশিনের মাধ্যমে রক্ত ও প্রসাব ছাড়াও চুল থেকে ডোপ টেস্ট করা যাবে ।প্রকল্পটির বাস্তবায়ন কাজ তদারকির দায়িত্বে রয়েছেন ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

Sharing is caring!