• ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৩২
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভের কিনার ঘেষে দূর্গাপূজার মন্ডপ তৈরীর কাজ চলছে; এনিয়ে সচেতন মহল তোলপাড়

bmahedi
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯, ১৮:৩৪ অপরাহ্ণ

আব্দুস সামাদ আজাদ,মৌলভীবাজারঃ

মৌলভীবাজারের মনুব্রীজ সংলগ্ন মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভের কিনার ঘেষে দূর্গাপূজার মন্ডপ তৈরীর কাজ চলছে। এনিয়ে জেলার সচেতন মহলের মধ্যে তোলপাড় শুরু হয়েছে। স্মৃতি স্তম্ভের পবিত্রতা নিয়ে প্রশ্ন সৃষ্টি হয়েছে বিভিন্ন মহলে। তারপরেও অনেকটা প্রভাব বিস্তার করে মন্ডপ তৈরির কাজ চলছে। জানা যায়, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালে মনু নদীর পুরাতন ব্রীজে হানাদার বাহিনীর প্রদর্শনী হত্যাকান্ড এবং বিভিন্ন এলাকা থেকে মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধের সমর্থকদেরকে ধরে এনে ব্রীজের উপর হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়।
এই ঘটনাকে অম্লান রাখার লক্ষ্যে পুরাতন ব্রীজের সংযোগ স্থলে তৈরী করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রস্তাবনায় এবং এলজিইডির ত্বত্তবাবধানে ৬৫ লক্ষ টাকা ব্যায়ে স্মৃতি স্তম্ভটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সূত্রে জানা যায়, দৃষ্টিনন্দন স্মৃতিস্তম্ভটি নির্মাণ কালে স্থানীয় “হরিজন যুব সংঘ” আপত্তি এনেছিলো। সড়ক ও জনপথ বিভাগের মালিকানাধীন পুরাতন মনুব্রীজের সংযোগস্থল দখল করে কথিত হরিজন যুব সংঘ এখানে প্রতিবছর দূর্গাপূজার মন্ডপ তৈরী করে পূজা আয়োজন করে আসছিলো। এই অজুহাতে এখানে স্মৃৃতিস্তম্ভ নির্মাণে আপত্তি এসেছিলো তাদের পক্ষ থেকে।
কিন্তু এ আপত্তি ডিঙ্গিয়ে ঠিকাদার পক্ষ দ্রুতগতিতে কাজ সম্পন্ন করে। এই অন্তরাল বাদ প্রতিবাদের জের হিসেবে হরিজন যুব সংঘ স্মৃতিস্তম্ভের কিনার ঘেষে দূর্গাপূজার মন্ডপ তৈরীর উদ্যোগ নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বর্ষিয়ান এক মুক্তিযোদ্ধা বলেন- মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ অঙ্গনে মন্ডপ স্থাপন করে পূজা আয়োজনের দৃষ্টান্ত নজির বিহীন এবং মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনার পরিপন্থী। তার বিরূপ প্রতিক্রিয়া অবশ্য থাকবে। আজ এখানে হচ্ছে পূজা, কাল আরেক পক্ষ ওয়াজ মাহফিল করার বায়না ধরবে।

আব্দুস সামাদ আজাদ,
মৌলভীবাজার
তাং-১৯ সেপ্টেম্বর ১৯

Sharing is caring!