• ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:৫৪
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

মোদির থেকে ভালো ছিল মনমোহন

bmahedi
প্রকাশিত নভেম্বর ১৬, ২০১৯, ১৭:৫৪ অপরাহ্ণ
আলহাজ্ব মতিয়ার রহমান :=

বাইরের কোনো সংস্থার সমীক্ষা নয়, সরকারেরই সমীক্ষা। আর তাতেই স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে ভারতে নরেন্দ্র মোদি সরকারের জমানায় কতটা শূন্য হয়ে পড়েছে ঘরোয়া অর্থনীতি। শুক্রবার প্রকাশিত দেশটির পরিসংখ্যান মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিবেদনে এ চিত্র উঠে এসেছে। এএফপি, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

গত চার দশকে এই প্রথম ভারতের গ্রামাঞ্চলের চাহিদা এক ধাক্কায় কমে গেছে অনেকটা। কারণ জীবনধারণের জন্য খরচই কমিয়ে দিয়েছেন গ্রামের মানুষ। সাত বছর আগেও প্রতি মাসে যে পরিমাণ খরচ তারা করতেন বা করতে পারতেন, এখন তাও করছেন না।এক দিকে জিনিসপত্রের দাম গত ৬ বছরে বেড়েছে। অন্যদিকে গ্রামের মানুষ খরচ করাই কমিয়ে দিয়েছে।

২০১৭ সালের জুলাই মাস থেকে ২০১৮ সালের জুন মাস পর্যন্ত এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, গ্রামের মানুষের মাথাপিছু মাসিক খরচ ২০১১-১২ আর্থিক বছরের তুলনায় ৮ শতাংশেরও বেশি কমে গিয়েছে।

হিসাব মতো ২০১১-১২ সালে গ্রামে মাথাপিছু মাসে খরচের পরিমাণ ছিল ১২১৭ টাকা। তা কমে ২০১৭-১৮ সালে হয়েছে ১১১০ টাকা। শহরের মানুষের খরচ অবশ্য বেড়েছে। কিন্তু সেই বৃদ্ধির হারও মূল্যবৃদ্ধির তুলনায় একেবারেই নগণ্য। মাত্র ২ শতাংশ। ২০১১-১২ সালে গড়ে শহরের মানুষ মাথাপিছু মাসে খরচ করত ২২১২ টাকা। তা বেড়ে হয়েছে ২২৫৬ টাকা।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, গ্রামে ও শহরে চাল, গম ইত্যাদি বাবদ খরচ কমিয়েছে মানুষ। গ্রামে তা কমেছে ২০ শতাংশ হারে, শহরে ৮ শতাংশ হারে। লবণ, চিনি, মসলা বাবদ খরচও গ্রামে ও শহরে অন্তত ১৫ শতাংশ কমেছে। এ ছাড়া ডাল, ভোজ্য তেল, ফলমূল সবই কেনা কমিয়েছেন গ্রাম-শহরের মানুষ। তাৎপর্যপূর্ণ হল, এই রিপোর্টও নাকি চেপে রেখেছিল ন্যাশনাল স্যাম্পেল সার্ভে অর্গানাইজেশন। কারণ রিপোর্টে নানা নেতিবাচক মন্তব্য রয়েছে। ঠিক যেভাবে লোকসভা ভোটের আগের এনএসএসও-র আর একটি রিপোর্ট চেপে রাখা হয়েছিল।

তাতে বলা হয়েছিল, গত চার দশকে এই প্রথমে কর্মসংস্থানের এত খারাপ অবস্থা দেশে। আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ ছবি এই রিপোর্ট থেকে পাওয়া যাচ্ছে। তা হল, মোদির তুলনায় চাহিদা অনেক বেশি ছিল গ্রাম ও শহরে।

মনমোহন জমানায় গ্রাম ও শহরে জীবনধারণের জন্য মানুষের খরচ বেড়েছিল অনেকটাই। তাতে চাহিদাও বেড়েছিল অর্থনীতিতে। যেমন, ২০০৯-১০ সাল থেকে ২০১১-১২ সালে গ্রামে মানুষের মাথাপিছু খরচ বেড়েছিল ১৫ শতাংশেরও বেশি। ১০৫৪ টাকা থেকে তা বেড়ে হয়েছিল ১২১৭ টাকা।শহরে তা বেড়েছিল সাড়ে ১১ শতাংশ হারে। ১৯৮৪ থেকে তা বেড়ে হয়েছিল ২২১২ টাকা।

Sharing is caring!