• ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:১০
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

যশোরে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে মা-ছেলে পুলিশ হেফাজতে

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১, ২২:৩০ অপরাহ্ণ
যশোরে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে মা-ছেলে পুলিশ হেফাজতে

যশোর প্রতিনিধি।।

যশোরে মনিরুজ্জামান নামে এক ব্যক্তিকে অপহরণের অস্ত্র ঠেকিয়ে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ এক নারী ও তার ছেলেকে হেফাজতে নিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম।
ভুক্তভোগি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কানপুর গ্রামের মোন্তাজ আলীর ছেলে সোলার কোম্পানির কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, টাকা কালেকশনের জন্য তিনি রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে যশোরে আসেন। শংকরপুরস্থ কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনালে বাস থেকে নামার পর যশোর কলেজ রোড দিয়ে হেঁটে মণিহারের দিকে যাচ্ছিলেন। কিছুদূর যাওয়ার পর একটি দোতলা বাড়ির সামনে পৌঁছালে ৪/৫ জন যুবক তার পথরোধ করে। একপর্যায়ে যুবকেরা তাকে ধরে দোতলা বাড়ির নিচতলায় নিয়ে যায়। সেখানে তাকে একটি ঘরের ভেতর আটকে মারধর এবং তার কাছে থাকা নগদ ৭শ’ টাকা কেড়ে নেয়। এ সময় তার কাছে একলাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। টাকা না দিলে তাকে হত্যা করা হবে বলে পিস্তল ঠেকিয়ে হুমকি দেয়। প্রাণ বাঁচাতে তিনি মোবাইল ফোনের ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পরিবারের কাছথেকে ১৬ হাজার টাকা তাদের হাতে দেন। এরপর শুরু হয় আরেক নাটক। এক নারীকে ওই ঘরে নিয়ে তার সাথে আপত্তিকর ছবি তোলার ভয়দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। এক পর্যায় কৌশলে মনিরুজ্জামান সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন। পরে বিকেলে কোতোয়ালি থানায় মৌখিক অভিযোগ করেন।
ওসির নির্দেশে থানার এসআই আফম মনিরুজ্জামান জানান, যশোর কলেজ রোডের ওই বাড়ির মালিক জাফরের স্ত্রী ও ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসেন।
কোতয়ালি থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে হেফাজতে আনা হয়েছে। এছাড়া ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকে পুলিশের টিম কাজ করেছে বলে তিনি জানান।

Sharing is caring!