• ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৩৬
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

যশোরে অসুস্থ বৃদ্ধের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন পুলিশ প্রধানের সহধর্মিনী

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত নভেম্বর ২৩, ২০২১, ২৩:৩৯ অপরাহ্ণ
যশোরে অসুস্থ বৃদ্ধের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন পুলিশ প্রধানের সহধর্মিনী
যশোর অফিস ।। 
শোর রেলষ্টেশনের পাশে রাস্তায় অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা বৃদ্ধের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়ে মানবিকতার নজির স্থাপন করেছেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেলের সহধর্মিনী ও পুনাক সভানেত্রী মিসেস জীশান মীর্জা। সোমবার র‍্যাব সদস্যদের মাধ্যমে উদ্ধার ও হাসপাতালে ভর্তির ঘটনা বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রচারে পর ঢাকায় নিয়ে ওই বৃদ্ধকে সুচিকিৎসা দিতে তাৎক্ষকি পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি। বর্তমানে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অজ্ঞাত ওই বৃদ্ধ।
স্থানীয়রা জানান, গত পাঁচদিন ধরে যশোর রেলষ্টেশনের পাশে রাস্তায় অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসার অভাবে পড়ে থেকে ধুকে ধুকে মরতে বসেছিল অজ্ঞাত বৃদ্ধ (৭০)। ৯৯৯ খবর পেয়ে বৃদ্ধকে প্রথমে উদ্বার করেন র‍্যাব যশোরের সদস্যরা। উদ্ধারের পর তার চিকিৎসার জন্য যশোর হাসপাতালে ভর্তি করেন র‌্যাব সদস্যরা। এই নিয়ে সোমবার বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হলে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেলের সহধর্মিনী ও পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জার নজরে আসে। বিষয়টি তিনি মানবিক দৃষ্টিতে দেখে যশোর জেলা পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারের সাথে যোগাযোগ করেন। বৃদ্ধের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিয়ে তাৎক্ষণিক তার চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নেন। পুলিশ সুপারকে বৃদ্ধ ব্যক্তির দেখভাল এবং তার সুচিকিৎসা নিশ্চিতের জন্য ঢাকায় পাঠানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও অনুরোধ করেন।
এরই প্রেক্ষিতে সোমবার রাতে পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার “ক” সার্কেল বেলাল হোসাইন-এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল হাসপাতালে যান। এসময় তারা ওই বৃদ্ধকে চিকিৎসা নিশ্চিত ও প্রয়োজনে ঢাকায় প্রেরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করেন এবং আইজিপি’র সহধর্মিণী ও পুনাক সভানেত্রী মিসেস জীশান মীর্জার পক্ষ থেকে ওই বৃদ্ধকে ফল, জুস ও অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী প্রদান করেন।
মঙ্গলবার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার “ক” সার্কেল বেলাল হোসাইন মিডিয়া কর্মিদের জানান, যশোর ২৫০ শয্যা হাসপালের চিকিৎসকরা ওই বৃদ্ধের চিকিৎসা করছেন। ডাক্তারা কিছু পরীক্ষা-নিরিক্ষা দিয়েছেন। সেগুলো করা হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ি উন্নত চিকিৎসার জন্য পুলিশের তত্ত্বাবধানে তাকে ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

Sharing is caring!