• ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:১৩
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

যশোরের মণিরামপুরের নেহালপুর-কপালিয়া সম্প্রসারিত সড়ক নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

bmahedi
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ০৭:২০ পূর্বাহ্ণ
যশোরের মণিরামপুরের নেহালপুর-কপালিয়া সম্প্রসারিত সড়ক নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য
যশোর ব্যুরো ।।

যশোরের মণিরামপুরের পূর্বাঞ্চলের জনগণের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি নেহালপুর-কপালিয়া সড়ক পুণঃসংস্কার হতে চলেছে। মণিরামপুর পৌরশহরের মোহনপুর বটতলা হতে নেহালপুর-কপালিয়া সড়ক খানাখন্দে পরিনত হওয়ায় যানবহন চলাচলসহ জনগণের চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হতো। যে কারনে ওই এলাকার মানুষ দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি সংস্কারের দাবি করে আসছিলেন। বিশেষ করে ২০১৮ সালে ৩০ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসন থেকে স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি নির্বাচিত হয়ে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় এই দাবি গণদাবিতে পরিনত হয়। সড়কটি সংস্কার হবে এলাকার সর্বস্তরের জনতা আশায় বুক বাধেন। জনগণের ভোগান্তির বিষয়টি মাথায় নিয়ে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্যও সড়কটি সংস্কারে তৎপর হন। সে মোতাবেক চলতি বছরের জুন মাসে সড়ক পুনঃসংস্কারের যাবতীয় কার্যাদি সম্পন্ন হয়। প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য’ের প্রচেষ্টায় সড়কটি শুধু সংস্কার নয়, ১২ ফুট চওয়া সড়কটির সংস্কারের পাশাপাশি তা ১৬ ফুটে সম্প্রসারিত হওয়ারও প্রকল্প গ্রহণ করা হয়।
উপজেলা প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, চলতি বছরের ২৭ আগস্ট ৩১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা প্রাক্কালিন ব্যয় ধরে তাহের ব্রাদার্স এন্ড লিমিটেড এবং মোজহার এন্টারপ্রাইজ নামের যৌথ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাথে সড়ক নির্মাণে চুক্তি হয়। যা ২০২১ সালের ১ অক্টোবর শেষ হবে।
শুক্রবার বিকেলে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সম্প্রসারিত সড়কের কাজের উদ্বোধন করেন এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি।
উপজেলার কালিবাড়িমোড়ে উদ্বোধনের পর স্থানীয় আওয়ামীলীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য। নেহালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসি। উন্নয়নের ছোঁয়া গ্রাম পর্যায়ে পৌছে দিতে জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। শহরের সকল নাগরিক সুবিধা গ্রামে পৌছে দিতে সরকার নানামূখী প্রকল্প হাতে নিয়ে বাস্তবায়ন করে চলেছে। সরকারের উন্নয়নমূলক কাজ সঠিকভাবে বাস্তবায়নে সকল দল, মতের নাগরিককে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। ইতোমধ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের মডেল বিশ্ব দরবারে সুনাম কুড়িয়েছে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক সাবেক পৌর মেয়র এনামুল হক বাবুল ফারাজী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম, জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মির্জা মোঃ ইফতেখার আলী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ শরিফী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান যুবলীগের আহবায়ক উত্তম চক্রবর্র্তী বাচ্চু, ওসি (তদন্ত ) শিকদার মতিয়ার, উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতা অ্যাড, বশির আহম্মেদ খান, ইউপি চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মাদ আলী, শেখর চন্দ্র রায়, মশিয়ূর রহমান, গাজী মাযাহারুল আনোয়ার, নজমুস সা’দাত, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ্যাড. কামরুজ্জামান, জেলা পরিষদের সদস্য ফারুক হোসাইন, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা অধ্যক্ষ চঞ্চল ভট্টাচার্য্য, সুবোধ কুমার সরকার, কালীপদ মন্ডল, প্রনয় চৌধরী, মুজিবুর রহমান, সিদ্দিকুর রহমান, আবুল কালাম আজাদ, গোলাম মোস্তফা খান মিঠু, মদন মোহন চক্রবর্তি, বুলবুল বৈরাগী প্রমুখ।
এরআগে ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে মণিরামপুরের মশিয়াহাটী আঞ্চলিক দুর্গা মন্দিরের সম্প্রসারিত নাথ মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি। এসময় মশিয়াহাটী ডিগ্রী কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি হিসাবে সভা করেন। সভাশেষে কলেজের অডিটোরিয়ামে অভিভাবক সমাবেশ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তিনি। কলেজ অধ্যক্ষ মনিশান্ত মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানমালায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুলটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায়, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রনয় কান্তি চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক মদন মোহন চক্রবর্তী, প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ ফিরোজ উদ্দিন, আঞ্চলিক দুর্গাপূজা উদযাপন কমিটির সম্পাদক বুলবুল বৈরাগীসহ এলাকার বিদ্যুৎসাহী ব্যক্তিবর্গ ও দুর্গাপূজা উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ।

Sharing is caring!