• ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:২৯
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

রায়েন্দা-বড়মাছুয়া খেয়া পারাপারে টোল নির্ধারন

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত আগস্ট ২৯, ২০২১, ১৩:৫৮ অপরাহ্ণ
রায়েন্দা-বড়মাছুয়া খেয়া পারাপারে টোল নির্ধারন
নাজমুল ইসলাম, শরণখোলা প্রতিনিধি।। 
অবশেষে বাগেরহাটের শরণখোলার রায়েন্দা ও মঠবাড়িয়ার বড় মাছুয়া খেয়া পারাপারে টোল নির্ধারনে দীর্ঘদিনের জটিলতার অবসান ঘটেছে। খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইসমাইল হোসেন এনডিসি শরণখোলার সুধীজন ও কর্মকর্তাদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় খেয়া পারাপারে টোল জনপ্রতি ৫০ টাকা নির্ধারন করে দেন।
শনিবার (২৮আগস্ট) বিকেল ৪ টায় উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খাতুনে জান্নাতের সভাপতিত্বে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়নকে আরো গতিশীল করতে জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক দল ও সুশিল সমাজের নের্তৃবৃন্দসহ সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।
সভায় শরণখোলায় পর্যাটন কেন্দ্র গড়ে তোলা, বৃষ্টিতে জলাবব্ধতা ও শুষ্ক মৌসুমে পানি সংকটের স্থায়ী সমাধান, সড়ক ও ব্রীজ নির্মান, ডাক্তার ও গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের শুণ্যপদ পুরণসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরা হয়। বিভাগীয় কমিশনার অচিরেই এসব সমস্যা সমাধানের আশ্বস প্রদান করেন।
মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ শাহিনুজ্জামান, উপজেলা চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন শান্ত, বঙ্গবন্ধু সমাজ কল্যান পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাবেক ডাকসু নেতা মোঃ আব্দুল হক হায়দার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আজমল হোসেন মুক্তা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান পারভেজ, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোজাম্মেল হোসেন, আসাদুজ্জামান মিলন, মাইনুল ইসলাম টিপু, জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা খালেক খান, শরণখোলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইসমাইল হোসেন লিটন ও উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভা শেষে বিভাগীয় কমিশনার রায়েন্দা-মাছুয়া খেয়াঘাট পরিদর্শন করেন।
উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে রায়েন্দা-মাছুয়া খেয়া পারাপারে ইজারাদার কর্তৃক ১৫০ থেকে ২০০ টাকা জনপ্রতি টোল আদায় করা নিয়ে দুই উপজেলার জনসাধারনের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করে আসছে।

Sharing is caring!