• ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৩২
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

রিফাত হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী: কাদের

bmahedi
প্রকাশিত জুন ২৭, ২০১৯, ২০:২০ অপরাহ্ণ

মতিয়ার রহমান ।।

বরগুনায় রিফাত শরীফ নামে এক যুবককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের যেকোনো মূল্যে গ্রেফতার করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম ও সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা জানান। খবর বাসসের

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বরগুনার ঘটনা খুবই দুঃখজনক। যেকোনো মূল্যে এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন। যারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের গ্রেফতার করা হবে, গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।’ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা শহরের কলেজ রোডে সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের বড় লবণগোলা গ্রামের দুলাল শরীফের ছেলে রিফাত শরীফকে স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে জখম করে একদল যুবক। তাকে প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকের পরামর্শে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘প্রকাশ্য দিবালোকে এই হামলা একটি নৃশংস ও মর্মান্তিক ঘটনা। আমি যতোটা পুলিশ সোর্সে জানতে পেরেছি এবং আমাদের মিডিয়াতেও খবর এসেছে, বিষয়টি অনেকটা ব্যক্তিগত সম্পর্ক এবং প্রেমঘটিত। সেখান থেকে ব্যক্তিগত বিদ্বেষের প্রকাশ ঘটেছে। ইতোমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদেরও গ্রেফতার করার প্রক্রিয়া চলছে।’ প্রধানমন্ত্রী কী ধরনের নির্দেশ দিয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের যেকোনো মূল্যে গ্রেফতার এবং বিচারের আওতায় নিয়ে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।’

এমন ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে কিনা– সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলন, ‘সামগ্রিকভাবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে– এটা কি বলা যায়? এগুলো দু’একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। বরগুনার ঘটনা তো আর রাজনৈতিক না।’

তিনি বলেন, দেশে বিরোধী দল আছে, কিন্তু তারা এমন কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারেনি যেখানে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হবে। বরং তারা নিজেরা নিজেদের মধ্যে সংঘাতে লিপ্ত। তাদের দলীয় অফিসে তালা দিচ্ছে তাদেরই দলের লোকেরা। বাইরে রাজনৈতিক দৃশ্যপটে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি, আপাতত ঘটনা ঘটার লক্ষ্মণও নেই।অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিষয়টা খতিয়ে দেখছে। মাদকের বিষয় হলে মাদকবিরোধী যে আইন আছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Sharing is caring!