• ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৪১
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

শেখ রাসেল দিবস-২০২১, থাকছে যত আয়োজন

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ১৮, ২০২১, ০৮:২৭ পূর্বাহ্ণ
শেখ রাসেল দিবস-২০২১, থাকছে যত আয়োজন

ঢাকা ব্যুরো।। শেখ রাসেল দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস” এ প্রতিপাদ্যে নিয়ে আগামীকাল ১৮ অক্টোবর প্রথমবারের মত জাতীয়ভাবে দেশব্যাপী জেলা-উপজেলা এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসসমূহে যথাযথ মর্যাদায় উদযাপিত হবে শেখ রাসেল দিবস ২০২১। দিবসটিকে ঘিরে মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর, সংস্থা, প্রতিষ্ঠান নানা ধরণের আয়োজন করেছে।

এরমধ্যে এছাড়া দিবসটি উপলক্ষ্যে আইসিটি বিভাগ ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির যৌথ উদ্যোগে ১৮ অক্টোবর সকাল ৬ টায় বনানী কবরস্থানে শেখ রাসেল এর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ। শিশু একাডেমির উদ্যোগে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক পুস্তক প্রদর্শ, দুপুর ১২টায় শিশু একাডেমি অডিটরিয়ামে শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শনে এবং বেলা ১টা ৪৫ মিনিটে শিশু একাডেমির মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

দিবসটি উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু এবং শিক্ষা, শিল্পকলা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি, ক্রীড়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ১০টি শেখ রাসেল স্বর্ণপদক, শেখ রাসেল পদকপ্রাপ্ত ও অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ২০টি ল্যাপটপ, এলইডিপি’র আওতায় মূল অনুষ্ঠানে ৫টি এবং স্ব স্ব জেলায় ৩৯৯৫টি মোট ৪ হাজারটি ল্যাপটপ প্রদান করা হবে। এছাড়া শেখ রাসেল শিশু- কিশোর পরিষদ ৬০টি পুরস্কার বিতরণ করবে। দিবসটির গুরুত্ব তুলে ধরে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হবে।

এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) হল অব ফেম-এ দিনব্যপী নানা আয়োজন করা হয়েছে। সকাল ৯টা ৩০মিনিটে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের যৌথ উদ্যোগে শেখ রাসেল দিবসের উদ্বোধনী ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করবেন। একই স্থানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে বিকাল ৩ টায় “শেখ রাসেল দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস” শীর্ষক জাতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে সন্ধ্যা ৬ টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র, হল অব ফেম-এ “কনসার্ট ফর পিস এ্যান্ড জাস্টিস” অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

দিবসটি উপলক্ষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহে শেখ রাসেল-এর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জনকূটনীতি অনুবিভাগ হতে প্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রদত্ত বাণীসমূহ পাঠ, শেখ রাসেল-এর উপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্রসমূহ প্রদশিত হবে। এছাড়াও অন্যান্য মন্ত্রণালয়, বিভাগ, প্রতিষ্ঠান, সংস্থা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান হতে গৃহীত কর্মসূচির আলোকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দলটির দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সোমবার শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন ‘শেখ রাসেল দিবস’ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত শহীদ শেখ রাসেলসহ ১৫ই আগস্টে নিহত সকল শহীদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে। পরদিন মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখবেন। আওয়ামী লীগের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, সহযোগী সংগঠন এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহ ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

এদিকে শেখ রাসেল দিবস পালন করতে আলাদা কর্মসুচি গ্রহন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ অধিদফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সোমবার সকাল সাড়ে ৭টায় ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে শহীদ শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করবেন। বেলা ১১টায় ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কু অ্যান্ড কলেজে কেক কাটা এবং শহীদ শেখ রাসেলের শিশু-কিশোর জীবনের ওপর আলোকপাত করে এক আলোচনা সভায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

দেশে প্রথমবারের মত উদযাপিত হতে যাওয়া শেখ রাসেল দিবসকে কেন্দ্র করে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নানা আয়োজনের নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। দিবসটি উপলক্ষে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘শেখ রাসেল দেয়ালিকা’ করার জন্য একটি স্থায়ী স্থান নির্ধারণ করতে হবে। বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও উৎসবকে কেন্দ্র করে ওই স্থানে কবিতা, সৃষ্টিশীল লেখা ও ছবি উপস্থাপন করা হবে। প্রথম দেয়ালিকা প্রকাশিত হবে অক্টোবরের মধ্যে এবং তার প্রতিপাদ্য হবে ‘শেখ রাসেল দিবস’।তবে ১১-২০ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুর্গাপূজার ছুটি থাকায় ২০ অক্টোবরের পর যেদিন শিক্ষার্থীরা তাদের নির্ধারিত শ্রেণি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করবে, সেদিনই তারা তাদের ছবি ও লেখাগুলো দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকের কাছে জমা দেবে। দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকের তত্ত্বাবধানেই লেখা ও ছবি নিয়ে দেয়ালিকা প্রস্তুত করতে হবে।

শেখ রাসেল দিবস ঘোষণা করে ‘ক’ শ্রেণিভু্ক্ত দিবস হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সরকার ঘোষিত প্রথমবারের মত শেখ রাসেল দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন উপলক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে নেওয়া জাতীয় কর্মসূচির সঙ্গে দেয়ালিকা প্রকাশ ও স্থান নির্ধারণের কর্মসূচি উদযাপনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Sharing is caring!