• ৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৪৫
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

সততার’ পুরস্কার, আবারো নৌকা পেলেন রাঙ্গুনিয়ার ৮ চেয়ারম্যান

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ৩০, ২০২১, ১৫:৪৬ অপরাহ্ণ
সততার’ পুরস্কার, আবারো নৌকা পেলেন রাঙ্গুনিয়ার ৮ চেয়ারম্যান
এম. মতিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো।। 
সন্ন ২৮ নভেম্বর রাঙ্গুনিয়া ইউপি নির্বাচনে ‘সততার’ পুরস্কার হিসেবে পূনরায় চেয়ারম্যান পদে দলীয় নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন পেলেন ৮ জন বর্তমান চেয়ারম্যান।
সততার পুরস্কার পাওয়া ৮ চেয়ারম্যান হলেন- ১নং রাজানগর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার, ১৪ নং দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আলহাজ্ব আহমদ সৈয়দ তালুকদার, ১৫ নং লালানগরের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মীর তৌহিদুল ইসলাম কাঞ্চন, ৭ নং বেতাগী ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নুর কুতুবুল আলম, ৮নং সরফভাটা ইউপির চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, ৯নং শিলক ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম তালুকদার, ১১ নং চন্দ্রঘোনা(কদমতলী) ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইদ্রিস আজগর ও ১২ নং কোদলা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবদুল কাইয়ুম তালুকদার।
জানা যায়, ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে নির্বাচিত হয়ে গত পাঁচ বছরে নিজ নিজ ইউনিয়নের উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখেন এই ৮ চেয়ারম্যান। ইউনিয়নে কার্যক্রমে শৃঙ্খলা, জবাবদিহিতা, ন্যায়নিষ্ঠতা ও স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠা করেন। দেশে কোভিড-১৯ প্রাণঘাতি নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমনের সময় তারা ইউনিয়নের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। অসহায়, কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের ঘরে ঘরে ছুঁটে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছিলেন। করোনা বিষয়ে ইউনিয়নবাসীকে সচেতন করতে নানা দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন। বিতরণ করেন মাস্ক, হ্যান্ড স্যানেটাইজারসহ সুরক্ষা সামগ্রী। অনেকে করোনাকালীন সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনসেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্তও হয়েছিলেন। তখন তাদের সুস্থতা কামনায় ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে ইউনিয়নে প্রতিটি মসজিদ ও মন্দিরে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সুস্থ হয়ে তারা আবার জনসেবায় যুক্ত হয়েছিলেন। তারা কখনো শাসক নয় সেবক হিসেবে করোনার দুর্যোগ ও সমস্যা-সংকটে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন স্বজনের মতো।
তাদের এসব জনসেবামূলক কর্মকাণ্ডে একেকজন সৎ রাজনীতিকের পথিকৃত হিসেবে সর্বমহলে সুনাম ও সুখ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তাই সততার পুরস্কার হিসেবে তাদেরকে পুনরায় স্বাধীনতা- সার্বভৌমত্ব, লাল- সবুজ পতাকা, উন্নয়ন, শান্তি, আস্থা ও ভরসার প্রতিক নৌকার কান্ডারীর দায়িত্ব অর্পণ করায় দলীয় নেতা-কর্মীসহ ৮ ইউনিয়নবাসী বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও রাঙ্গুনিয়ার রাজনৈতিক অভিভাবক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপিকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন।
 
 বার্তাকণ্ঠ /এন

Sharing is caring!