• ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:১৮
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

স্কুল-কলেজ না খোলার জন্য শত শত বার্তা ছিল : দীপু মনি

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১, ১২:৩৪ অপরাহ্ণ
স্কুল-কলেজ না খোলার জন্য শত শত বার্তা ছিল : দীপু মনি
ঢাকা অফিস।। 
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি স্কুলের টিউশন ফি’র বিষয়ে অভিভাবকদের প্রতি নমনীয় হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। অভিভাবকরা যদি টিউশন ফি একবারে দিতে না পারেন, তাহলে তাদেরকে মাসিক কিস্তির ভিত্তিতে টিউশন ফি পরিশোধের ব‌্যবস্থা করে দেয়ার জন‌্যও স্কুল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন তিনি।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সঠিক সময় মনে করেই আজ দেশে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্কুল-কলেজ না খোলার জন্য শত শত বার্তা ছিল।

আজ রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর সার্বিক প্রস্তুতি পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণের হার কমতে থাকায় কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়েছে। আমরা ধরে নিয়েছিলাম- ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সংক্রমণের হার একেবারে ৫ শতাংশে না হলেও এর কাছাকাছি নেমে আসবে। তার ভিত্তিতেই কিন্তু আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নেই। আমরা এই সময়টাকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার যথার্থ সময় মনে করেছি।

করোনা পরিস্থিতি ও ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে গিয়ে কোনো অনিয়ম পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।

আজিমপুর গার্লস স্কুল পরিদর্শনে গিয়ে তিনি আরো বলেন, আমরা আজকে এখানে এসেছি জানিয়ে। আমরা প্রায়শই জানিয়ে না জানিয়ে সব জায়গায় যাবো। কোথাও যদি কোনো নিয়মের ব্যত্যয় দেখি, তাহলে সংশ্লিষ্ট যারা থাকবেন শিক্ষক কর্মকর্তা বা আমার অধিদপ্তরের কর্মকর্তা হোন যাদের এটি দেখভাল করার কথা ছিল কিংবা যারা এটা দেখছেন তাদের বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসময় শ্রেণিকক্ষে ময়লা পাওয়ায় আজিমপুর গভর্নমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে সেই অধ্যক্ষের নেতৃত্বে গঠতি মনিটরিং কমিটির সদস্য শিক্ষকদেরও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

পরে সাংবাদিকদের শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে সবার সচেতনতা একরকম নয়। যারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে যাবেন, তাদের একটু সচেতন থাকতে হবে। স্কুলের প্রতিটা আনাচে-কানাচে খুঁজে দেখতে হবে। কোথাও যেন ময়লা না থাকে। যতটা ভালো পারা যায়, আমরা চেষ্টা করছি।

এছাড়া স্কুলড্রেস নিয়ে শিক্ষার্থীদের চাপ না দিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

Sharing is caring!