• ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:০২
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মীর জালালের টেবিল ফ্যানে ঝড় উঠেছে

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত নভেম্বর ২০, ২০২১, ২৩:৪৮ অপরাহ্ণ
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মীর জালালের টেবিল ফ্যানে ঝড় উঠেছে

মীর দুলাল, হবিগঞ্জ।। 

বিগঞ্জ সদর উপজেলা ১ নং লোকড়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব মীর জালাল  এলাকার মানুষের দুর্দিনে পাশে ছিলেন বলে আজ টেবিল ফ্যান প্রতীকের প্রতি ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণ ও আস্হা বেড়েছে।

শনিবার (২০নভেম্বর)  বিকাল ৩ টার সময় হবিগঞ্জ সদর উপজেলার লোকড়া ইউনিয়নের কাশিপুর হরিপুর গোয়ালনগর দৌলতপুর জয়নগর গ্রামের গন প্রচারণা ও পথ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ভোটের হাওয়া বইছে ১নং লোকড়া ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে পাড়ায় মহল্লায়।

আগামী ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন কে সামনে রেখে মাঠে কাজ করছে প্রার্থীরা।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে টেবিল ফ্যান প্রতীকের পথসভা গন প্রচারণা অনুষ্ঠিত হয়!

প্রচারণা কালে দোকানপাট ও বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের সাথে দেখা করেন এবং সবার খোজ খবর নেয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব মীর জালাল ও টেবিল ফ্যান প্রতিক এর জন্য সকলের কাছে দোয়া ভোট প্রার্থনা করেন তিনি।

এ সময় উনার সাথে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তি সহ সকল স্থরের জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ১ নং লোকড়া ইউনিয়নের সতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন তিনি।

জনসেবার কারণে সাধারণ মানুষের কাছে তিনি অত্যন্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে সৎ ও সু-পরিচিতি লাভ করেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে তিনি নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন সাধারণ মানুষের সেবায়।

ইউনিয়নের বিভিন্ন পাড়া- মহল্লায়, চায়ের দোকানে সবার আলোচনার শির্ষে রয়েছে আলহাজ্ব মীর জালাল টেবিল ফ্যান প্রতিক প্রার্থী!

অন্য দিকে মহামারি করোনা কালে সচেতন নাগরিক কমিটির হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আহবায়ক এর দায়িত্ব পালন করেন আলহাজ্ব মীর জালাল এর ছোট ভাই
দৈনিক বার্তা কন্ঠের হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি মীর দুলাল।

এই কান্তি কালে এলাকার মানুষের পাশে ছিলেন তিনি।
ত্রান সামগ্রী বিতরন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা তৈরি সহ বিভিন্ন সামাজিক কাজে ছিলেন তিনি অগ্রভাগে।

ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব মীর জালাল বলেন, আমাকে যদি জনগণ তাদের সেবা করার সুযোগদেয়, তাহলে আমি নির্বাচিত হয়ে লোকড়া ইউনিয়ন কে একটি রোল মডেল ইউনিয়ন হিসেবে উপহার দিবো এলাকাবাসীকে।

আমার স্বপ্ন এলাকাবাসীর সেবা করা ও সুখে দুঃখে পাশে থাকা।
তিনি আরো বলেন, আমি আপনাদের এলাকার সন্তান।
আমি আপনাদের সুখ ও দুঃখের সাথী হয়ে থাকতে চাই এবং আপনাদের সমর্থন চাই। ইউনিয়ন পরিষদে আপনাদের প্রতিনিধিত্ব করতে চাই।ইউনিয়নের বিভিন্ন সমাজ উন্নয়ন কাজে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি।

আপনাদের সবার ভালেবাসা ও সমর্থনের মাধ্যমে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন, লেখাপড়া ও খেলাধুলার মান আরো সমৃদ্ধ করতে কাজ করে যেতে চাই। আমি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি।

 বার্তাকণ্ঠ/এন

Sharing is caring!