• ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:৪৪
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বসছেন পণ্যবাহী যানের মালিক-শ্রমিকরা

bmahedi
প্রকাশিত নভেম্বর ২০, ২০১৯, ১৯:৫৩ অপরাহ্ণ
মো: ইদ্রিস আলী :=

সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধন চেয়ে কর্মবিরতি পালনকারী পণ্যবাহী যানের মালিক-শ্রমিকরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন।

বুধবার রাত ৯টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর  ধানমন্ডির বাসায় এই বৈঠকটি হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তাদের কয়েকজনের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক হলেও তাতে আলোচনা ফলপ্রসূ না হওয়ায় আবার সবাইকে নিয়ে বসা হবে বলে জানিয়েছেন ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের মিডিয়া শাখার সদস্য মোহাম্মদ স্বপন।

গতকাল সংবাদ সম্মেলন করে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দেয় পণ্যবাহী যানের মালিক-শ্রমিকরা। বুধবার ভোর থেকে ধর্মঘট পালনকারী শ্রমিকদের বাধায় অনেক জেলায় বাস চলাচল করতে পারছে না বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। পণ্যবাহী যান বন্ধ থাকার প্রভাব বাজারে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের মিডিয়া শাখার সদস্য মোহাম্মদ স্বপন  বলেন, ‘আমরা সকাল থেকে সকল ধরণের পণ্য পরিবহন বন্ধ রেখেছি। আগেই প্রায় সত্তর ভাগ চালক গাড়ি (ট্রাক) ছেড়ে গিয়েছিল। তবে আজ কেউ গাড়িতে উঠছে না। আর মালিকরাও কোনও চালক পাচ্ছে না যে গাড়ি রাস্তায় নামাবে।’

‘নতুন আইন সংশোধন না হলে কেউ গাড়ি চালাবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে। কারণ বর্তমান আইনে জরিমানার পরিমাণ খুব বেশি। আর চালকদের যে অ-জামিনযোগ্য ধারাটা আছে সেটার কারণে শ্রমিকরা রাস্তায় গাড়ি নামাতে ইচ্ছুক না।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতে দুই একজন বসেছিল; সবাই ছিল না। তাই আলোচনা তেমন হয়নি। আজ রাত নয়টার দিকে আবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বসা হতে পারে।’

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতে মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে একটা বৈঠক হয়েছে। বুধবার সারাদেশের নেতৃবৃন্দ ঢাকায় আসবেন এবং মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। রাত নয়টার দিকে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।’

ঢাকার কুর্মিটোলায় কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের মুখে ২০১৮ সালে সংসদে নতুন সড়ক পরিবহন আইন পাস হয়। আইনটি গত ১ নভেম্বর থেকে কার্যকরের ঘোষণা দিয়ে প্রজ্ঞাপন দেয় সরকার।

টানা ১৭ দিন প্রচার প্রচারণার পর সোমবার থেকে আইনটির প্রয়োগ শুরু করেছে পরিবহন নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিআরটিএ। রাজধানীর বিভিন্ন স্পটে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ক্রুটিপূর্ণ যানবাহনের ফিটনেস, রুট পারর্মিট, ট্যাক্স টোকেন এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই তাদের নমনীয়ভাবে জরিমানা করা হচ্ছে।

Sharing is caring!