• ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:২৭
  • রেজিস্ট্রেশন ৪৬১

হাতীবান্ধায় সমিতির টাকা লোপাটের অভিযোগ সহকারী পরিদর্শকের বিরুদ্ধে

বার্তাকন্ঠ
প্রকাশিত অক্টোবর ১০, ২০২১, ১৩:৫৭ অপরাহ্ণ
হাতীবান্ধায় সমিতির টাকা লোপাটের অভিযোগ সহকারী পরিদর্শকের বিরুদ্ধে

মোস্তাফিজুর রহমান, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি ।।

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় সমিতির বেতনের টাকা কর্তনের অভিযোগ উঠেছে উপজেলা সমবায় কার্যালয়ের সহকারী পরিদর্শক নিবারন চন্দ্র সেন ও জাহাঙ্গির আলমের বিরুদ্ধে।
জানা গেছে, গত সোমবার (০৫ অক্টোবর) সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন কর্মসূচী (সিভিডিপি) ৩য় পর্যায়ে ৭০টি কমিটিকে ৩ মাসের বেতন বাবদ ৫ হাজার ৪ শত টাকা করে প্রদানের কথা থাকলেও প্রতিটি কমিটি থেকে ৭ শত টাকা করে কর্তন করে ৪ হাজার ৭ শত টাকা প্রদান করা হয়।

সিন্দুর্না গ্রাম উন্নয়ন সমিতির কর্মী ফজলু মিয়া ও ধওলাই সরকার পাড়া গ্রাম উন্নয়ন সমিতির কর্মী লক্ষী নারায়ন বর্মন জানান, গত ৫ তারিখে আমাদের সমিতির বেতন দেয়ার জন্য উপজেলা সমবায় অফিসে আসতে বলে। অফিসের আসার পর দেখি বেতন থেকে ৭ শত টাকা করে কর্তন করা হচ্ছে। এ বিষয়ে তাৎক্ষনিক সমবায় অফিসার বিধু ভুষন রায়কে জানালে তিনি টাকা কর্তন করতে নিষেধ করেন। কিন্তু সহকারী পরিদর্শক নিবারন চন্দ্র সেন ও জাহাঙ্গির আলম তার কথা না শুনে ওই ৭ শত টাকা কর্তন করে ৪ হাজার ৭ শত টাকা প্রদান করেন। এছাড়াও এই নিবারন সাহেব অফিসে আসা সেবা গ্রহীতাদের সাথে ভালো আচারন করেন না।
উপজেলা সমবায় কার্যালয়ের সহকারী পরিদর্শক নিবারন চন্দ্র সেন বলেন, টাকা বিতরনের দিন আমি ছুটিতে ছিলাম। আমাকে সহযোগীতা করার জন্য জাহাঙ্গির সাহেব ডেকেছিলেন। আমি ওই দিন শুধুমাত্র জাহাঙ্গির সাহেবকে সহযোগীতা করেছি।

উপজেলা সমবায় কার্যালয়ের সহকারী পরিদর্শক জাহাঙ্গির আলম বলেন, ৭ শত নয় প্রত্যেকের বেতন থেকে ৫ শত টাকা করে কর্তন করা হয়েছে পরিদর্শন খরচ বাবদ।

হাতীবান্ধা উপজেলা সমবায় অফিসার বিধু ভুষন রায় বলেন, আমি ওই দিন জাহাঙ্গির ও নিবারনকে টাকা কর্তন করতে নিষেধ করেছি। কিন্তু তার পরও তারা টাকা কর্তন করেছে আমি বিষয়টি পরে জানতে পেয়ে আজ রবিবার সবাইকে ডেকে টাকা ফেরত দিতে বলেছি। টাকা ফেরত না দিলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা সমবায় অফিসার ফরিদ উদ্দিন সরকার বলেন, এ বিষয়ে আমাকে কেউ অভিযোগ করেনি। তারপরও বিষয়টি খোজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!