সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘দুই কোটি অনুপ্রবেশকারীকে পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া করবে বিজেপি

সম্রাট আকবর ।।

দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি সরকার। এরপরই আবারও সামনে এসেছে নাগরিক তালিকা ইস্যু। পশ্চিমবঙ্গে দুই কোটি অনুপ্রবেশকারী রয়েছে বলে দাবি করে রাজ্যের বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গী বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় এলে দুই কোটি অনুপ্রবেশকারীকে রাজ্য ছাড়া করা হবে।

লোকসভা ভোটের প্রচারে এসে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি নিয়ে গলা হাঁকিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আলিপুরদুয়ারের একটি সভায় তিনি বলেছিলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে মোদী সরকার গড়লে, এনআরসি নিয়ে আসব আর রাজ্য থেকে খুঁজে খুঁজে অনুপ্রবেশকারীদের বের করে দেওয়ার কাজ করব, দেশের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো আপস করা হবে না।’

এনআরসি নিয়ে মাঠে-ময়দান থেকে সংসদে, সর্বত্র বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূল সুর চড়ালেও গেরুয়া শিবির যে তাতে দমছে না এদিন সেকথাই স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দিলেন বিজয়বর্গী৷

উত্তর ২৪ পরগনায় এক সভায় তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস নিজের ভোট ব্যাংক তৈরী করতে দেশের নিরাপত্তাকে জলাঞ্জলি দিয়েছে৷ এই বাংলায় ২ কোটি অনুপ্রবেশকারী জবর দখল করে রয়েছে৷ যারা জবর দখলকারী তারা দেশবাসীর অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমাদের কেন্দ্রীয় সরকার দেশবাসীর জন্য এ রাজ্যে যখন খাদ্যশস্য পাঠায়, তখন এই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সেই খবর এ রাজ্যের প্রকৃত মানুষদের না দিয়ে ওই অনুপ্রবেশকারীদের কাছে পাঠিয়ে দেয়।’

তার মতে, পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার থাকলে দেশ সুরক্ষিত থাকবে না৷ কয়েক বছরের মধ্যেই দ্বিতীয় কাশ্মীর হয়ে যাবে। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের চলে যাওয়া দরকার।

পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এ রাজ্যে অনুপ্রবেশকারীদের যে সংখ্যাটা বিজয়বর্গী দিচ্ছেন তার থেকে পরিষ্কার এখানেও তারা তলে তলে অবৈধ বিদেশীদের খোঁজ-খবর চালানো শুরু করে দিয়েছেন৷

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

পাকিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত ২৫

‘দুই কোটি অনুপ্রবেশকারীকে পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া করবে বিজেপি

প্রকাশের সময় : ০৬:৫৮:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০১৯

সম্রাট আকবর ।।

দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি সরকার। এরপরই আবারও সামনে এসেছে নাগরিক তালিকা ইস্যু। পশ্চিমবঙ্গে দুই কোটি অনুপ্রবেশকারী রয়েছে বলে দাবি করে রাজ্যের বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গী বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় এলে দুই কোটি অনুপ্রবেশকারীকে রাজ্য ছাড়া করা হবে।

লোকসভা ভোটের প্রচারে এসে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি নিয়ে গলা হাঁকিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আলিপুরদুয়ারের একটি সভায় তিনি বলেছিলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে মোদী সরকার গড়লে, এনআরসি নিয়ে আসব আর রাজ্য থেকে খুঁজে খুঁজে অনুপ্রবেশকারীদের বের করে দেওয়ার কাজ করব, দেশের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো আপস করা হবে না।’

এনআরসি নিয়ে মাঠে-ময়দান থেকে সংসদে, সর্বত্র বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূল সুর চড়ালেও গেরুয়া শিবির যে তাতে দমছে না এদিন সেকথাই স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দিলেন বিজয়বর্গী৷

উত্তর ২৪ পরগনায় এক সভায় তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস নিজের ভোট ব্যাংক তৈরী করতে দেশের নিরাপত্তাকে জলাঞ্জলি দিয়েছে৷ এই বাংলায় ২ কোটি অনুপ্রবেশকারী জবর দখল করে রয়েছে৷ যারা জবর দখলকারী তারা দেশবাসীর অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমাদের কেন্দ্রীয় সরকার দেশবাসীর জন্য এ রাজ্যে যখন খাদ্যশস্য পাঠায়, তখন এই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সেই খবর এ রাজ্যের প্রকৃত মানুষদের না দিয়ে ওই অনুপ্রবেশকারীদের কাছে পাঠিয়ে দেয়।’

তার মতে, পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার থাকলে দেশ সুরক্ষিত থাকবে না৷ কয়েক বছরের মধ্যেই দ্বিতীয় কাশ্মীর হয়ে যাবে। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের চলে যাওয়া দরকার।

পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এ রাজ্যে অনুপ্রবেশকারীদের যে সংখ্যাটা বিজয়বর্গী দিচ্ছেন তার থেকে পরিষ্কার এখানেও তারা তলে তলে অবৈধ বিদেশীদের খোঁজ-খবর চালানো শুরু করে দিয়েছেন৷