সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শাহিনের খোয়া যাওয়া সেই ভ্যান উদ্ধার, আটক ৩

এস জেট শিমুল ।। সাতক্ষীরা ব্যুরো ।।

সাতক্ষীরায় দুর্বৃত্তদের হাতে জখম কিশোর শাহিনের খোয়া যাওয়া ভ্যানটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা  হলেন- নাঈমুল ইসলাম নাঈম, আরশাদ পাড় ও বাকের আলী।

সোমবার সকালে সন্দেহভাজন হিসেবে নাঈমকে তার বাড়ি যশোরের  কেশবপুর উপজেলার বাজিতপুর গ্রাম থেকে আটক করা হয়। পরে তার  দেয়া তথ্যমতে আরশাদ পাড় ও বাকের আলীকে আটক করে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ।

বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার  মো. সাজ্জাদুর রহমান বলেন,  ঘটনার সঙ্গে আরও ৩-৪ জন জড়িত রয়েছে। তাদেরও আটকের চেষ্টা চলছে। তবে তিনি জড়িতদের নাম প্রকাশ করেননি।

গত শুক্রবার যশোরের  কেশবপুরের গোলাখালী মাদরাসার সপ্তম শ্রেণির ছাত্র শাহিন  সকালে ব্যাটারিচালিত ভ্যান নিয়ে রোজগারে বের হয়। দুপুরে দুর্বৃত্তরা ভ্যানটি ভাড়া  নেয়। পরে ধানদিয়া গ্রামের হামজামতলা মাঠে ঢুকে একটি পাটক্ষেতের পাশে দুর্বৃত্তরা শাহিনের মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত করে ভ্যানটি নিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকে সে। জ্ঞান ফিরে কাঁদতে থাকলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানায় খবর দেয়।

শাহিনকে উদ্ধার করে প্রথমে খুলনার আড়াইশ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়। শনিবার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। শনিবার রাতেই তার মাথার অপারেশন সম্পন্ন হয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা আগের থেকে ভালো বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শাহিনের সুচিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

আট রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন

শাহিনের খোয়া যাওয়া সেই ভ্যান উদ্ধার, আটক ৩

প্রকাশের সময় : ০৭:০১:৫৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০১৯

এস জেট শিমুল ।। সাতক্ষীরা ব্যুরো ।।

সাতক্ষীরায় দুর্বৃত্তদের হাতে জখম কিশোর শাহিনের খোয়া যাওয়া ভ্যানটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা  হলেন- নাঈমুল ইসলাম নাঈম, আরশাদ পাড় ও বাকের আলী।

সোমবার সকালে সন্দেহভাজন হিসেবে নাঈমকে তার বাড়ি যশোরের  কেশবপুর উপজেলার বাজিতপুর গ্রাম থেকে আটক করা হয়। পরে তার  দেয়া তথ্যমতে আরশাদ পাড় ও বাকের আলীকে আটক করে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ।

বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার  মো. সাজ্জাদুর রহমান বলেন,  ঘটনার সঙ্গে আরও ৩-৪ জন জড়িত রয়েছে। তাদেরও আটকের চেষ্টা চলছে। তবে তিনি জড়িতদের নাম প্রকাশ করেননি।

গত শুক্রবার যশোরের  কেশবপুরের গোলাখালী মাদরাসার সপ্তম শ্রেণির ছাত্র শাহিন  সকালে ব্যাটারিচালিত ভ্যান নিয়ে রোজগারে বের হয়। দুপুরে দুর্বৃত্তরা ভ্যানটি ভাড়া  নেয়। পরে ধানদিয়া গ্রামের হামজামতলা মাঠে ঢুকে একটি পাটক্ষেতের পাশে দুর্বৃত্তরা শাহিনের মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত করে ভ্যানটি নিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকে সে। জ্ঞান ফিরে কাঁদতে থাকলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানায় খবর দেয়।

শাহিনকে উদ্ধার করে প্রথমে খুলনার আড়াইশ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়। শনিবার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। শনিবার রাতেই তার মাথার অপারেশন সম্পন্ন হয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা আগের থেকে ভালো বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শাহিনের সুচিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন।