মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহজালালে সোনার বারসহ চীনা নাগরিক আটক

সম্রাট আকবর ।। 

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২৮টি সোনার বারসহ চীনের এক নাগরিককে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। রোববার দুবাই থেকে আগত ইকে ৫৮২ বিমানের যাত্রী ছিলেন তিনি। তার ব্যাগের তিনটি চার্জার লাইটের ব্যাটারির মধ্যে থেকে ওই সোনা উদ্ধার করা হয়। যাত্রীর নাম জিয়ান জু।

উদ্ধারকৃত সোনার মোট ওজন ৩ কেজি ২৫০ গ্রাম। যার বাজার মূল্য প্রায় ১ কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। সংস্থার মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কাস্টমস গোয়েন্দা জানায়, বেলা ১১টায় দুবাই থেকে ইকে ৫৮২ বিমান যোগে আগত চীনের এক নাগরিকের কাছ থেকে ২৮টি সোনার বার আটক করা হয় যার মোট ওজন ৩২৫০ গ্রাম । গোপন সংবাদ থাকায় ফ্লাইটের আগত যাত্রীদের দিকে নজর রাখা হয়। এক পর্যায়ে যাত্রীকে শনাক্ত করা হয়। যাত্রী গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় তার কাছে সোনা আছে কিনা জানতে চাওয়া হয়। যাত্রী সোনা থাকার কথা অস্বীকার করলে দেহ তল্লাশি করে কোনো কিছু না পেয়ে তার ল্যাগেজ স্ক্যানিং করলে ধাতব বস্তুর সংকেত পাওয়া যায় । জব্দকৃত সোনার বিষয়ে শুল্ক আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং যাত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

শাহজালালে সোনার বারসহ চীনা নাগরিক আটক

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৩:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০১৯

সম্রাট আকবর ।। 

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২৮টি সোনার বারসহ চীনের এক নাগরিককে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। রোববার দুবাই থেকে আগত ইকে ৫৮২ বিমানের যাত্রী ছিলেন তিনি। তার ব্যাগের তিনটি চার্জার লাইটের ব্যাটারির মধ্যে থেকে ওই সোনা উদ্ধার করা হয়। যাত্রীর নাম জিয়ান জু।

উদ্ধারকৃত সোনার মোট ওজন ৩ কেজি ২৫০ গ্রাম। যার বাজার মূল্য প্রায় ১ কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। সংস্থার মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কাস্টমস গোয়েন্দা জানায়, বেলা ১১টায় দুবাই থেকে ইকে ৫৮২ বিমান যোগে আগত চীনের এক নাগরিকের কাছ থেকে ২৮টি সোনার বার আটক করা হয় যার মোট ওজন ৩২৫০ গ্রাম । গোপন সংবাদ থাকায় ফ্লাইটের আগত যাত্রীদের দিকে নজর রাখা হয়। এক পর্যায়ে যাত্রীকে শনাক্ত করা হয়। যাত্রী গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় তার কাছে সোনা আছে কিনা জানতে চাওয়া হয়। যাত্রী সোনা থাকার কথা অস্বীকার করলে দেহ তল্লাশি করে কোনো কিছু না পেয়ে তার ল্যাগেজ স্ক্যানিং করলে ধাতব বস্তুর সংকেত পাওয়া যায় । জব্দকৃত সোনার বিষয়ে শুল্ক আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং যাত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন ।