শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আওয়ামী লীগ সরকার সমালোচনাকে স্বাগত জানায়: তথ্যমন্ত্রী

রোকনুজ্জামান রিপন।।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার সব সময়ই সমলোচনাকে স্বাগত জানিয়ে এসেছে। গঠনমূলক সমালোচনা সঠিক পথে চলতে সহায়তা করে।’ বৃহস্পতিবার রাজধানীর বারিধারার একটি হোটেলে ডেমোক্র্যাটিক ইন্টারন্যাশনালের আয়োজিত ‘ইয়ং লিডার ফেলোশিপ’ শীর্ষক একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘আলোচনা, সমালোচনা, তর্কবিতর্ক ও যুক্তি পাল্টা যুক্তি একটি গণতান্ত্রিক দেশের ভিত্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারে এবং এভাবে একটি সমাজ এগিয়ে যেত পারে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় সমালোচনাকে স্বাগত জানান। এমনকি আমরা সংসদে বিরোধী দলীয় সদস্যদের মতামতকে অধিকতর গুরুত্ব দিচ্ছি।’

তরুণদের জন্য এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচি আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য দলের কর্মীরা অংশ নিচ্ছেন। এটা একটি গণতান্ত্রিক দেশের জন্য সত্যিই মঙ্গলজনক।’ তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠায় একসাথে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

পার্টি ক্যাটি ক্রোয়াকের ডেমোক্র্যাটিক ইন্টারন্যাশনাল চিফ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

আওয়ামী লীগ সরকার সমালোচনাকে স্বাগত জানায়: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ১০:২২:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

রোকনুজ্জামান রিপন।।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার সব সময়ই সমলোচনাকে স্বাগত জানিয়ে এসেছে। গঠনমূলক সমালোচনা সঠিক পথে চলতে সহায়তা করে।’ বৃহস্পতিবার রাজধানীর বারিধারার একটি হোটেলে ডেমোক্র্যাটিক ইন্টারন্যাশনালের আয়োজিত ‘ইয়ং লিডার ফেলোশিপ’ শীর্ষক একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘আলোচনা, সমালোচনা, তর্কবিতর্ক ও যুক্তি পাল্টা যুক্তি একটি গণতান্ত্রিক দেশের ভিত্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারে এবং এভাবে একটি সমাজ এগিয়ে যেত পারে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় সমালোচনাকে স্বাগত জানান। এমনকি আমরা সংসদে বিরোধী দলীয় সদস্যদের মতামতকে অধিকতর গুরুত্ব দিচ্ছি।’

তরুণদের জন্য এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচি আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য দলের কর্মীরা অংশ নিচ্ছেন। এটা একটি গণতান্ত্রিক দেশের জন্য সত্যিই মঙ্গলজনক।’ তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠায় একসাথে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

পার্টি ক্যাটি ক্রোয়াকের ডেমোক্র্যাটিক ইন্টারন্যাশনাল চিফ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।