রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুলনায় ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার সাংবাদিক জলিলের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি

নুরুজ্জামান লিটন।।
খুলানা প্রেসক্লাবের সহকারী সম্পাদক, খুলনা ক্রাইম রিপোর্টার এ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ ও দৈনিক খুলনাঞ্চল’র সিনিয়র রিপোর্টার এমএ জলিলকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গ্রেফতার এবং কল্পকাহিনী সাজিয়ে মাদক মামলা দায়ের করে কারাগারে পাঠানোর তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও কঠোর সমালোচনা করেছেন খুলনার কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টায় খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে খুলনার কর্মরত সাংবাদিকদের ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে সাংবাদিক এমএ জলিলের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সোর্সদের মাধ্যমে মাদক বিকিকিনির পথ পরিষ্কার করতে যেভাবে সাংবাদিক এমএ জলিলকে হয়রানিমূলক মামলায় ফাঁসিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে, তাতে সমগ্র সাংবাদিক সমাজ আতঙ্কিত। মাদক নির্মূলে সরকারের জিরোটলারেন্স নীতি ভেস্তে দিয়ে কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী মাদক বিক্রেতাদের লালন-পালন করছেন বলে অভিযোগ করেন বক্তারা।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সাংবাদিক এম এ জলিলকে নিঃশর্ত মুক্তি এবং মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের অসাধু কর্মকর্তাদের শাস্তি দাবি করেন। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ’র ব্যুরো প্রধান কাজী মোতাহার রহমান বাবু। দৈনিক ‘কালের কণ্ঠ’ খুলনা বু্যূরোর নিজস্ব প্রতিবেদক কৌশিক দে বাপী, দৈনিক সমকাল ও দৈনিক পুর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার হাসান হিমালয় মানববন্ধন সঞ্চালনা করেন। মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন খুলনা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মোঃ রাশিদুল ইসলাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান আহমেদ মোল্যা, সাংবাদিক আবু হেনা মোস্তফা জামাল পপলু, এএইচএম শামিমুজ্জামান এইচ এম আলাউদ্দিন, মাহবুবুর রহমান মুন্না, মুহাম্মদ নুরুজ্জামান, বিমল সাহা, সোহাগ দেওয়ান, রকিবুল ইসলাম মতি, সংহতি প্রকাশ করে বক্তৃতা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. নুরুল হাসান রুবা, নির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ মেহেদী হাসান, এমইউজে খুলনার সাবেক সভাপতি ড. মোঃ জাকির হোসেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার খুলনার সমন্বয়ক এ্যাড. মোমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম হাবিব, কোষাধ্যক্ষ রফিউল আলম টুটুল, কেইউজে’র সাবেক সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, সাংবাদিক আলহাজ্ব আবু তৈয়ব, বাপ্পী খান, মাসুদুর রহমান রানা, এনামুল হক, মুহাম্মদ শামসুজ্জামান শাহীন, মাকসুদ আলী, হেদায়েত হোসেন মোল্যা, শেখ আল এহসান, উত্তম কুমার, কাজী শামীম আহমেদ, আলমগীর হান্নান, আহমদ মুসা রঞ্জু, আশরাফুল ইসলাম নূর, আব্দুল্লাহ্ আল মামুন রুবেল, মোহাম্মদ মিলন, হারুনুর রশিদ, মাসুম বিল্লাহ্, আসাফুর রহমান কাজল, মেহেদী হাসান, নাজমুল হাসান ও কাজী শান্ত প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

সাংবাদিক হামিদুল ইসলামের চিকিৎসায় আর্থিক সহায্য প্রয়োজন

খুলনায় ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার সাংবাদিক জলিলের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি

প্রকাশের সময় : ০৪:২৭:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

নুরুজ্জামান লিটন।।
খুলানা প্রেসক্লাবের সহকারী সম্পাদক, খুলনা ক্রাইম রিপোর্টার এ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ ও দৈনিক খুলনাঞ্চল’র সিনিয়র রিপোর্টার এমএ জলিলকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গ্রেফতার এবং কল্পকাহিনী সাজিয়ে মাদক মামলা দায়ের করে কারাগারে পাঠানোর তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও কঠোর সমালোচনা করেছেন খুলনার কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টায় খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে খুলনার কর্মরত সাংবাদিকদের ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে সাংবাদিক এমএ জলিলের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সোর্সদের মাধ্যমে মাদক বিকিকিনির পথ পরিষ্কার করতে যেভাবে সাংবাদিক এমএ জলিলকে হয়রানিমূলক মামলায় ফাঁসিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে, তাতে সমগ্র সাংবাদিক সমাজ আতঙ্কিত। মাদক নির্মূলে সরকারের জিরোটলারেন্স নীতি ভেস্তে দিয়ে কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী মাদক বিক্রেতাদের লালন-পালন করছেন বলে অভিযোগ করেন বক্তারা।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সাংবাদিক এম এ জলিলকে নিঃশর্ত মুক্তি এবং মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের অসাধু কর্মকর্তাদের শাস্তি দাবি করেন। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ’র ব্যুরো প্রধান কাজী মোতাহার রহমান বাবু। দৈনিক ‘কালের কণ্ঠ’ খুলনা বু্যূরোর নিজস্ব প্রতিবেদক কৌশিক দে বাপী, দৈনিক সমকাল ও দৈনিক পুর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার হাসান হিমালয় মানববন্ধন সঞ্চালনা করেন। মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন খুলনা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মোঃ রাশিদুল ইসলাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান আহমেদ মোল্যা, সাংবাদিক আবু হেনা মোস্তফা জামাল পপলু, এএইচএম শামিমুজ্জামান এইচ এম আলাউদ্দিন, মাহবুবুর রহমান মুন্না, মুহাম্মদ নুরুজ্জামান, বিমল সাহা, সোহাগ দেওয়ান, রকিবুল ইসলাম মতি, সংহতি প্রকাশ করে বক্তৃতা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. নুরুল হাসান রুবা, নির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ মেহেদী হাসান, এমইউজে খুলনার সাবেক সভাপতি ড. মোঃ জাকির হোসেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার খুলনার সমন্বয়ক এ্যাড. মোমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম হাবিব, কোষাধ্যক্ষ রফিউল আলম টুটুল, কেইউজে’র সাবেক সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, সাংবাদিক আলহাজ্ব আবু তৈয়ব, বাপ্পী খান, মাসুদুর রহমান রানা, এনামুল হক, মুহাম্মদ শামসুজ্জামান শাহীন, মাকসুদ আলী, হেদায়েত হোসেন মোল্যা, শেখ আল এহসান, উত্তম কুমার, কাজী শামীম আহমেদ, আলমগীর হান্নান, আহমদ মুসা রঞ্জু, আশরাফুল ইসলাম নূর, আব্দুল্লাহ্ আল মামুন রুবেল, মোহাম্মদ মিলন, হারুনুর রশিদ, মাসুম বিল্লাহ্, আসাফুর রহমান কাজল, মেহেদী হাসান, নাজমুল হাসান ও কাজী শান্ত প্রমুখ।