মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরাইলের সঙ্গে সব চুক্তি বাতিল ঘোষণা মাহমুদ আব্বাসের

প্রফেসর জিন্ণাত আলী ।। 

ইসরাইলের সঙ্গে হওয়া সব চুক্তি বাস্তবায়ন বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। দুই পক্ষের সম্পর্কের ব্যাপক অবনতির মধ্যে বৃহস্পতিবার তিনি এমন ঘোষণা দিয়েছেন।

রামাল্লার পশ্চিমতীর শহরে এক ভাষণে তিনি বলেন, আমরা ঘোষণা করছি, ইসরাইলের সঙ্গে সই হওয়া সব চুক্তি বাস্তবায়ন বন্ধে নেতৃবৃন্দ একমত হয়েছেন। এসব চুক্তি এখন থেকে আর মেনে চলে হবে না।-খবর এএফপি দুই পক্ষের মধ্যের সহযোগিতা বন্ধ নিয়ে এর আগে প্রেসিডেন্ট আব্বাসকে পরিষ্কারভাবে কথা বলতে শোনা যায়নি। যদিও ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা ইহুদিবাদী রাষ্ট্রটির সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ভেঙে দেয়ার হুমকি দিয়ে আসছিলেন।

আব্বাস বলেন, সিদ্ধান্ত কীভাবে বাস্তবায়ন করা হবে, তা পর্যালোচনা করতে দ্রুতই একটি কমিটি গঠন করবে ফিলিস্তিনিরা।নিরাপত্তা থেকে পানি ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন ইস্যুতে দুই পক্ষ এতদিন একসঙ্গে কাজ করে আসছিল। কিন্তু এখন চুক্তি থেকে ফিলিস্তিনিরা সরে আসায় পশ্চিমতীরের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। তবে ৮৪ বছর বয়সী আব্বাস এর আগে এরকম হুমকি দিয়ে আসলেও তা বাস্তবায়ন করেননি। সম্প্রতি পশ্চিমতীরভিত্তিক আব্বাস সরকার ও ইসরাইলের মধ্য সম্পর্কের চরম অবনতি ঘটেছে।

গত ফেব্রুয়ারিতে ফিলিস্তিনিদের পক্ষে আদায় করা রাজস্ব কর থেকে মাসে এক কোটি ডলার কমিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসরাইল। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের তরফে ইসরাইলি কারাগারে আটক বন্দিদের পরিবারকে দেয়া অর্থের সমপরিমাণ এই ডলার। জবাবে ফিলিস্তিনিরা মাসে এক কোটি ৮০ লাখ ডলার কর নিতে অস্বীকার জানায়। এতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ অর্থনৈতিক সংকটে পড়ে যায়। সোমবার ১২টি ফিলিস্তিনিদের আবাসিক ভবন মাটিতে মিশিয়ে দেয় ইসরাইল। কিছু কিছু ভবনের নির্মাণ কাজ চলছিল তখন।

বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট আব্বাস বলেন, এই ভবন উচ্ছেদ জাতিগত নির্মূল অভিযানের শামিল এবং এটা মানবতাবিরোধী অপরাধ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ইসরাইলের সঙ্গে সব চুক্তি বাতিল ঘোষণা মাহমুদ আব্বাসের

প্রকাশের সময় : ০৮:০০:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০১৯
প্রফেসর জিন্ণাত আলী ।। 

ইসরাইলের সঙ্গে হওয়া সব চুক্তি বাস্তবায়ন বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। দুই পক্ষের সম্পর্কের ব্যাপক অবনতির মধ্যে বৃহস্পতিবার তিনি এমন ঘোষণা দিয়েছেন।

রামাল্লার পশ্চিমতীর শহরে এক ভাষণে তিনি বলেন, আমরা ঘোষণা করছি, ইসরাইলের সঙ্গে সই হওয়া সব চুক্তি বাস্তবায়ন বন্ধে নেতৃবৃন্দ একমত হয়েছেন। এসব চুক্তি এখন থেকে আর মেনে চলে হবে না।-খবর এএফপি দুই পক্ষের মধ্যের সহযোগিতা বন্ধ নিয়ে এর আগে প্রেসিডেন্ট আব্বাসকে পরিষ্কারভাবে কথা বলতে শোনা যায়নি। যদিও ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা ইহুদিবাদী রাষ্ট্রটির সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ভেঙে দেয়ার হুমকি দিয়ে আসছিলেন।

আব্বাস বলেন, সিদ্ধান্ত কীভাবে বাস্তবায়ন করা হবে, তা পর্যালোচনা করতে দ্রুতই একটি কমিটি গঠন করবে ফিলিস্তিনিরা।নিরাপত্তা থেকে পানি ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন ইস্যুতে দুই পক্ষ এতদিন একসঙ্গে কাজ করে আসছিল। কিন্তু এখন চুক্তি থেকে ফিলিস্তিনিরা সরে আসায় পশ্চিমতীরের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। তবে ৮৪ বছর বয়সী আব্বাস এর আগে এরকম হুমকি দিয়ে আসলেও তা বাস্তবায়ন করেননি। সম্প্রতি পশ্চিমতীরভিত্তিক আব্বাস সরকার ও ইসরাইলের মধ্য সম্পর্কের চরম অবনতি ঘটেছে।

গত ফেব্রুয়ারিতে ফিলিস্তিনিদের পক্ষে আদায় করা রাজস্ব কর থেকে মাসে এক কোটি ডলার কমিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসরাইল। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের তরফে ইসরাইলি কারাগারে আটক বন্দিদের পরিবারকে দেয়া অর্থের সমপরিমাণ এই ডলার। জবাবে ফিলিস্তিনিরা মাসে এক কোটি ৮০ লাখ ডলার কর নিতে অস্বীকার জানায়। এতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ অর্থনৈতিক সংকটে পড়ে যায়। সোমবার ১২টি ফিলিস্তিনিদের আবাসিক ভবন মাটিতে মিশিয়ে দেয় ইসরাইল। কিছু কিছু ভবনের নির্মাণ কাজ চলছিল তখন।

বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট আব্বাস বলেন, এই ভবন উচ্ছেদ জাতিগত নির্মূল অভিযানের শামিল এবং এটা মানবতাবিরোধী অপরাধ।