বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুযোগ-সুবিধা বাড়ছে বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশনে

মো: তানজীর মহসিন ।। 

বেনাপোল স্থলবন্দরের চেকপোস্ট দিয়ে ভারত যাতায়াতে যাত্রীদের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস ভবন পরিদর্শন করেছেন এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বুধবার সন্ধ্যায়  বেনাপোল কাস্টমস হাউজের কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসেন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মোহাম্মদ বেলাল হোসেন চৌধুরী বলেন, বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৫ থেকে ৬ হাজার যাত্রী যাতায়াত করে। দিন দিন যাত্রী আরও বাড়ছে। কিন্তু অবকাঠামোগত কিছু উন্নয়ন সমস্যার কারণে যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। যাত্রীরা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এসব কাজ দ্রুত শুরু হবে। এতে স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা।

বিকেলে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস ভবন পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন- যশোর জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার (নাভারণ সার্কেল) জুয়েল ইমরান, বেনাপোল স্থলবন্দরের উপপরিচালক (ট্রাফিক) মামুন তরফদারসহ বন্দর, কাস্টমস ও পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। গতমাসের ২৪ সেপ্টেম্বর  নৌপরিবহন মন্ত্রী বেনাপোল বন্দর পরামর্শক কমিটির এক সভায় যাত্রীদের সুবিধার জন্য  পুরিশ ইমিগ্রেশনকে ঢেলে সাজাবার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহীত হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

সুযোগ-সুবিধা বাড়ছে বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশনে

প্রকাশের সময় : ১১:২৯:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ অক্টোবর ২০১৯
মো: তানজীর মহসিন ।। 

বেনাপোল স্থলবন্দরের চেকপোস্ট দিয়ে ভারত যাতায়াতে যাত্রীদের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস ভবন পরিদর্শন করেছেন এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বুধবার সন্ধ্যায়  বেনাপোল কাস্টমস হাউজের কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসেন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মোহাম্মদ বেলাল হোসেন চৌধুরী বলেন, বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৫ থেকে ৬ হাজার যাত্রী যাতায়াত করে। দিন দিন যাত্রী আরও বাড়ছে। কিন্তু অবকাঠামোগত কিছু উন্নয়ন সমস্যার কারণে যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। যাত্রীরা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এসব কাজ দ্রুত শুরু হবে। এতে স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা।

বিকেলে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস ভবন পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন- যশোর জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার (নাভারণ সার্কেল) জুয়েল ইমরান, বেনাপোল স্থলবন্দরের উপপরিচালক (ট্রাফিক) মামুন তরফদারসহ বন্দর, কাস্টমস ও পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। গতমাসের ২৪ সেপ্টেম্বর  নৌপরিবহন মন্ত্রী বেনাপোল বন্দর পরামর্শক কমিটির এক সভায় যাত্রীদের সুবিধার জন্য  পুরিশ ইমিগ্রেশনকে ঢেলে সাজাবার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহীত হয়।