বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার পর যে প্রযুক্তি যাচ্ছে চীনের হাতে

মো: ইদ্রিস আলী :–

ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আগেই সতর্ক করতে পারে এমন প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরিতে চীনকে সহযোগিতা করবে রাশিয়া। এতে দুই দেশের মধ্যে বিশেষ সম্পর্ক তৈরি হবে বলে শুক্রবার ক্রেমলিন এক বিবৃতিতে জানায়।

পুতিন বলেন, এটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা চীনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আমূল পরিবর্তন করবে।

ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সিস্টেমটি কখন কার্যকর হবে তা বলতে অস্বীকার করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে পেসকভ বলেন, এ পদক্ষেপ চীনের সঙ্গে রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আরও বাড়িয়ে তুলবে।

চীনের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক কৌশলগত ছিল। খুবই সতর্কতার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক পরিচালনা করা হত। রাশিয়ার সঙ্গে চীনের চার হাজার ২০০ কিলোমিটার (২৬০০ মাইল) সীমান্ত রয়েছে।

পেসকভ সাংবাদিকদের বলেন, নিরাপত্তা ও সামরিক সক্ষমতাসহ সামরিক প্রযুক্তিতে চীনের সঙ্গে রাশিয়ার বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে।তবে এ বিষয়টি নিয়ে রয়টার্সের পক্ষ থেকে অনুরোধ করলে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কোনো ধরনের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ড. ইউনূসকে ৫০ কোটি টাকা কর জমা দিয়ে আপিল করতে হবে : হাইকোর্ট রায়

যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার পর যে প্রযুক্তি যাচ্ছে চীনের হাতে

প্রকাশের সময় : ১০:২৭:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৪ অক্টোবর ২০১৯
মো: ইদ্রিস আলী :–

ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আগেই সতর্ক করতে পারে এমন প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরিতে চীনকে সহযোগিতা করবে রাশিয়া। এতে দুই দেশের মধ্যে বিশেষ সম্পর্ক তৈরি হবে বলে শুক্রবার ক্রেমলিন এক বিবৃতিতে জানায়।

পুতিন বলেন, এটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা চীনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আমূল পরিবর্তন করবে।

ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সিস্টেমটি কখন কার্যকর হবে তা বলতে অস্বীকার করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে পেসকভ বলেন, এ পদক্ষেপ চীনের সঙ্গে রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আরও বাড়িয়ে তুলবে।

চীনের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক কৌশলগত ছিল। খুবই সতর্কতার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক পরিচালনা করা হত। রাশিয়ার সঙ্গে চীনের চার হাজার ২০০ কিলোমিটার (২৬০০ মাইল) সীমান্ত রয়েছে।

পেসকভ সাংবাদিকদের বলেন, নিরাপত্তা ও সামরিক সক্ষমতাসহ সামরিক প্রযুক্তিতে চীনের সঙ্গে রাশিয়ার বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে।তবে এ বিষয়টি নিয়ে রয়টার্সের পক্ষ থেকে অনুরোধ করলে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কোনো ধরনের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।