শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পর বিএনপি নেতা মেজর হাফিজ গ্রেপ্তার

আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান :=

বিএনপির সহ-সভাপতি মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।  শনিবার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরার পর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাকে পল্লবী থানায় হস্তান্তর করা হয়।

পল্লবী থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, রাত সাড়ে আটটায় তাকে পুলিশ হেফাজতে আনা হয়। তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা রয়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন শনিবার রাতে দেশ রূপান্তরকে বলেন, সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পরপরই মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঠিক কী কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানতে পারেননি মোশাররফ হোসেন।

তবে তিনি বলেন, আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা। কখন কোন মামলায় জামিনের মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তার খেয়াল সবসময় থাকে না। এর কোনো একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

রাতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের মুক্তির দাবি জানান। খোঁজখবর নেওয়ার জন্য ভোলার নেতারা থানায় যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম। এছাড়া দফতর থেকেও খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির জেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পর বিএনপি নেতা মেজর হাফিজ গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৭:০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯
আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান :=

বিএনপির সহ-সভাপতি মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।  শনিবার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরার পর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাকে পল্লবী থানায় হস্তান্তর করা হয়।

পল্লবী থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, রাত সাড়ে আটটায় তাকে পুলিশ হেফাজতে আনা হয়। তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা রয়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন শনিবার রাতে দেশ রূপান্তরকে বলেন, সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পরপরই মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঠিক কী কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানতে পারেননি মোশাররফ হোসেন।

তবে তিনি বলেন, আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা। কখন কোন মামলায় জামিনের মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তার খেয়াল সবসময় থাকে না। এর কোনো একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

রাতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের মুক্তির দাবি জানান। খোঁজখবর নেওয়ার জন্য ভোলার নেতারা থানায় যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম। এছাড়া দফতর থেকেও খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির জেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।