শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জেনে নিন দ্রুত কাশি ভালো হওয়ার ঘরোয়া চিকিৎসা

মো: মনিরুল আলম মিশর :=

বাইরে বের হলেই প্রচণ্ড গরম। ঘাম থেকে অনেকের কাশির সমস্যা হয়ে থাকে। দেখা যায় দিনভর খুক খুক করে কাশছেন? শরীর ব্যথা করছে? নাক বন্ধ হয়ে রয়েছে? ঠাণ্ডা-কাশি খুবই যন্ত্রণার। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আছে ঘরোয়া চিকিৎসা।

দ্রুত ঠাণ্ডা-কাশি উপশমে কিছু ঘরোয়া উপায়ও রয়েছে। তবে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি জানিয়েছে কীভাবে দ্রুত ঠাণ্ডা-কাশি ভালো হয়। আসুন জেনে নেই দ্রুত কাশি ভালো হওয়ার ঘরোয়া চিকিৎসা।

আদা, লেবু ও মধুর চা :=এক কাপ পানিতে চার থেকে পাঁচ টুকরো আদা পাঁচ মিনিট সিদ্ধ করুন।এরপর চুলা থেকে নামিয়ে ছেঁকে নিন। এই আদার রস চায়ের মধ্যে এক টেবিল চামচ মধু ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে খেতে পারেন। প্রতিদিন তিন থেকে চারবার এই চা পান করুন। দ্রুত কাশি ভালো হবে।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ও মধু :=দুই টেবিল চামচ অ্যাপেল সিডার ও ভিনেগার এক গ্লাস ও এক টেবিল চামচ মধু ভালোভাবে মেশান। দিনে অন্তত একবার পানীয়টি পান করুন।

ভিক্স মাখুন পায়ে :=সামান্য ভিক্স আঙুলে নিয়ে পায়ের পাতায় ম্যাসাজ করে মোজা পরে রাতে ঘুমান। পর পর চার রাত এ পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

জেনে নিন দ্রুত কাশি ভালো হওয়ার ঘরোয়া চিকিৎসা

প্রকাশের সময় : ০৫:৩৬:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯
মো: মনিরুল আলম মিশর :=

বাইরে বের হলেই প্রচণ্ড গরম। ঘাম থেকে অনেকের কাশির সমস্যা হয়ে থাকে। দেখা যায় দিনভর খুক খুক করে কাশছেন? শরীর ব্যথা করছে? নাক বন্ধ হয়ে রয়েছে? ঠাণ্ডা-কাশি খুবই যন্ত্রণার। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আছে ঘরোয়া চিকিৎসা।

দ্রুত ঠাণ্ডা-কাশি উপশমে কিছু ঘরোয়া উপায়ও রয়েছে। তবে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি জানিয়েছে কীভাবে দ্রুত ঠাণ্ডা-কাশি ভালো হয়। আসুন জেনে নেই দ্রুত কাশি ভালো হওয়ার ঘরোয়া চিকিৎসা।

আদা, লেবু ও মধুর চা :=এক কাপ পানিতে চার থেকে পাঁচ টুকরো আদা পাঁচ মিনিট সিদ্ধ করুন।এরপর চুলা থেকে নামিয়ে ছেঁকে নিন। এই আদার রস চায়ের মধ্যে এক টেবিল চামচ মধু ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে খেতে পারেন। প্রতিদিন তিন থেকে চারবার এই চা পান করুন। দ্রুত কাশি ভালো হবে।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ও মধু :=দুই টেবিল চামচ অ্যাপেল সিডার ও ভিনেগার এক গ্লাস ও এক টেবিল চামচ মধু ভালোভাবে মেশান। দিনে অন্তত একবার পানীয়টি পান করুন।

ভিক্স মাখুন পায়ে :=সামান্য ভিক্স আঙুলে নিয়ে পায়ের পাতায় ম্যাসাজ করে মোজা পরে রাতে ঘুমান। পর পর চার রাত এ পদ্ধতি অনুসরণ করুন।