রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘সিনেমা জগতের ক্ষমতাবানরাই কুপ্রস্তাব দিতেন’

মনিরুল আলম মিশর :=

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে কাস্টিং কাউচের অভিজ্ঞতা এর আগে প্রথম সারির অনেক অভিনেত্রীর কাছ থেকেই শোনা গিয়েছে। এবার এ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। মুম্বাইতে প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী হয়েও একাধিকবার কাস্টিং কাউচের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। রিচা চাড্ডা জানান, প্রথমদিকে তিনি এই ধরণের প্রস্তাব বুঝতে পারতেন না। কিন্তু পরে যখন অভিনেত্রী হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরও সিনেমা জগতের ক্ষমতাবান ব্যক্তিদের থেকে এই ধরণের প্রস্তাব আসতো তখন বেশ অবাকই হয়ে যেতেন তিনি। তবে একটা দীর্ঘ সময় ধরে এই সব ঘটনায় চুপ করেও থাকতে হয়েছে। কাস্টিং কাউচ প্রসঙ্গে রিচা বলেছেন, ‘এই ধরণের প্রস্তাব ফেরানোর ফল কী হতে পারে তা জেনেও অনেক সময় না বোঝার ভান করে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতাম আমি। কিন্তু তাতে করে লাভ কিছুই হয়নি। ফলস্বরূপ, কাজ করার পরও আমার পারিশ্রমিকের চেক বাউন্স করেছে। আমাকে হৃত্বিক রোশনের মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করতে বলা হয়েছে। এমনকি, কাজ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েও শেষ মুহূর্তে দেখেছি অন্য কেউ সেই কাজ পেয়ে গিয়েছে।’

‘সিনেমা জগতের ক্ষমতাবানরাই কুপ্রস্তাব দিতেন’

রিচা আরও জানান, মিটু আন্দোলন নিয়ে যখন মুম্বাইয়ের সিনেজগৎ তোলপাড়, সেই সময়েও ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকজন ব্যক্তি বহাল তবিয়তে সুবিধা নিয়ে গিয়েছেন। আর স্পষ্টবাদী আর দুর্মুখ হওয়ার কারণে তিনি একের পর এক কাজ হারিয়েছেন। ‘মাসান’ এর জন্য তিনি কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে গিয়েছেন। তারপরও কাজ পাওয়ার জন্য যদি তাকে এই সব প্রস্তাবে রাজি হতে হয় তবে সেসব কাজ না করাই শ্রেয়!

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

জাপার চেয়ারম্যান হিসেবে জি এম কাদেরের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই

‘সিনেমা জগতের ক্ষমতাবানরাই কুপ্রস্তাব দিতেন’

প্রকাশের সময় : ০৪:০৬:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
মনিরুল আলম মিশর :=

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে কাস্টিং কাউচের অভিজ্ঞতা এর আগে প্রথম সারির অনেক অভিনেত্রীর কাছ থেকেই শোনা গিয়েছে। এবার এ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। মুম্বাইতে প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী হয়েও একাধিকবার কাস্টিং কাউচের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। রিচা চাড্ডা জানান, প্রথমদিকে তিনি এই ধরণের প্রস্তাব বুঝতে পারতেন না। কিন্তু পরে যখন অভিনেত্রী হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরও সিনেমা জগতের ক্ষমতাবান ব্যক্তিদের থেকে এই ধরণের প্রস্তাব আসতো তখন বেশ অবাকই হয়ে যেতেন তিনি। তবে একটা দীর্ঘ সময় ধরে এই সব ঘটনায় চুপ করেও থাকতে হয়েছে। কাস্টিং কাউচ প্রসঙ্গে রিচা বলেছেন, ‘এই ধরণের প্রস্তাব ফেরানোর ফল কী হতে পারে তা জেনেও অনেক সময় না বোঝার ভান করে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতাম আমি। কিন্তু তাতে করে লাভ কিছুই হয়নি। ফলস্বরূপ, কাজ করার পরও আমার পারিশ্রমিকের চেক বাউন্স করেছে। আমাকে হৃত্বিক রোশনের মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করতে বলা হয়েছে। এমনকি, কাজ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েও শেষ মুহূর্তে দেখেছি অন্য কেউ সেই কাজ পেয়ে গিয়েছে।’

‘সিনেমা জগতের ক্ষমতাবানরাই কুপ্রস্তাব দিতেন’

রিচা আরও জানান, মিটু আন্দোলন নিয়ে যখন মুম্বাইয়ের সিনেজগৎ তোলপাড়, সেই সময়েও ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকজন ব্যক্তি বহাল তবিয়তে সুবিধা নিয়ে গিয়েছেন। আর স্পষ্টবাদী আর দুর্মুখ হওয়ার কারণে তিনি একের পর এক কাজ হারিয়েছেন। ‘মাসান’ এর জন্য তিনি কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে গিয়েছেন। তারপরও কাজ পাওয়ার জন্য যদি তাকে এই সব প্রস্তাবে রাজি হতে হয় তবে সেসব কাজ না করাই শ্রেয়!