রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তুরস্কে জিম্মায় মার্কিন পারমাণবিক বোমা নিরাপদ আছে: ট্রাম্প

মো: ইদ্রিস আলী :=

তুরস্কের ইনসিরলিক বিমান ঘাঁটিতে থাকা অর্ধশত মার্কিন পারমাণবিক বোমা নিরাপদ রয়েছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এমন এক সময়ে তিনি এই মন্তব্য করেছেন, যখন সিরিয়ায় তুর্কিশ অভিযান নিয়ে দুই ন্যাটো মিত্রের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এরদোগানের অভিযান আমাকে বিস্মিত করেনি। কারণ তিনি বহুদিন থেকে এমন একটি অভিযান চালানোরকথা বলে আসছিলেন। দীর্ঘ সময় ধরে সীমান্তে সেনা বাড়িয়ে আসছিলেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

‘কুর্দিরাও ফেরেস্তা না’ বলে তাদের অবমাননা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সিরিয়ায় আইএসবিরোধী যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান মিত্র ছিলেন কুর্দিশ ওয়াইপিজি যোদ্ধারা। যে কারণে দেশের ভেতরে নিজ দল রিপাবলিকানদেরও সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প।

তুর্কিশ অভিযানের আগে এরদোগানের সঙ্গে ফোনালাপ প্রসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, আমি তাকে কোনো সবুজ-সংকেত দিইনি। বরং সবুজ-সংকেতের বিপরীতেই ছিলাম। ফোনালাপের পর তাকে একটি চিঠি লিখেছি, খুবই শক্তিশালী চিঠি,’ দাবি ট্রাম্পের।

 

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

রাজবাড়ী বালিয়াকান্দিতে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে  আজাদ 

তুরস্কে জিম্মায় মার্কিন পারমাণবিক বোমা নিরাপদ আছে: ট্রাম্প

প্রকাশের সময় : ১২:০৩:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯
মো: ইদ্রিস আলী :=

তুরস্কের ইনসিরলিক বিমান ঘাঁটিতে থাকা অর্ধশত মার্কিন পারমাণবিক বোমা নিরাপদ রয়েছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এমন এক সময়ে তিনি এই মন্তব্য করেছেন, যখন সিরিয়ায় তুর্কিশ অভিযান নিয়ে দুই ন্যাটো মিত্রের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এরদোগানের অভিযান আমাকে বিস্মিত করেনি। কারণ তিনি বহুদিন থেকে এমন একটি অভিযান চালানোরকথা বলে আসছিলেন। দীর্ঘ সময় ধরে সীমান্তে সেনা বাড়িয়ে আসছিলেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

‘কুর্দিরাও ফেরেস্তা না’ বলে তাদের অবমাননা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সিরিয়ায় আইএসবিরোধী যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান মিত্র ছিলেন কুর্দিশ ওয়াইপিজি যোদ্ধারা। যে কারণে দেশের ভেতরে নিজ দল রিপাবলিকানদেরও সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প।

তুর্কিশ অভিযানের আগে এরদোগানের সঙ্গে ফোনালাপ প্রসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, আমি তাকে কোনো সবুজ-সংকেত দিইনি। বরং সবুজ-সংকেতের বিপরীতেই ছিলাম। ফোনালাপের পর তাকে একটি চিঠি লিখেছি, খুবই শক্তিশালী চিঠি,’ দাবি ট্রাম্পের।