মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চোখ চুলকাচ্ছে, গলা শুকিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের

নুরুজ্জামান লিটন :=

ভয়াবহ অভিজ্ঞতা দিয়ে ভারত সফর শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের। দিল্লির পরিবেশ এতটাই দূষিত যে, অনুশীলনের সময় নানা ধরনের শারীরিক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ক্রিকেটারদের।

দূষণের শহর দিল্লিতে আগামী রবিবার প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ। তার আগে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের সমস্যার কথা জানান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, ‘এখানে খুব ধোঁয়া যা কুয়াশার মতো পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এটা ক্রিকেটের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ না। একজন ক্রিকেটার হিসেবে এমন পরিবেশ আপনি অবশ্যই আশা করবেন না। অনুশীলনে আমাদের চোখ চুলকাচ্ছে, গলা শুকিয়ে আসছে; কিন্তু কেউ অসুস্থ হয়নি, এটাই বড় কথা।’

এমন দূষণ বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের কাছে একদম নতুন কিছু নয় বলে মনে করেন ডোমিঙ্গো। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের কাছে এই পরিবেশ খুব একটা নতুন কিছু না। বাংলাদেশেও কিন্তু বায়ুদূষণ আছে। তাই আমি বলব এই পরিস্থিতির সঙ্গে ছেলেরা ইতিমধ্যেই খাপ খাওয়াতে পেরেছে। আমাদের শুধু নিজেদের কাজ নিয়ে এগোতে হবে। আমি চিকিৎসক না। তাই এসব নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না।’

এর আগে বৃহস্পতিবার শুধু লিটন দাসকে মাস্ক পরে অনুশীলন করতে দেখা গেছে। শুক্রবার দলের অনেকেই মাস্ক পরেছিলেন। বাদ ছিলেন শুধু মোস্তাফিজুর রহমান ও মুশফিকুর রহিম।

বাতাসের গুণমান সূচক বা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) ০ থেকে ৫০-এর মধ্যে ঘোরাফেরা করলে তা স্বাস্থ্যের পক্ষে অনুকুল বলে ধরা হয়। বাজির কানফাটানো আওয়াজ এবং তা থেকে নির্গত বিষাক্ত গ্যাসের জেরে দিওয়ালিতে দিল্লি এবং নয়ডার গড় একিউআই বেড়ে ৩০৬ ও ৩৫৬ -তে দাঁড়িয়েছিল আগেই। এই মুহূর্তে দিল্লির একিউআই ৫০০ ছাড়িয়ে গেছে!

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা এড়াতে ইরান-রাশিয়ার ভিন্ন কৌশল

চোখ চুলকাচ্ছে, গলা শুকিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের

প্রকাশের সময় : ০৭:৩৩:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ নভেম্বর ২০১৯
নুরুজ্জামান লিটন :=

ভয়াবহ অভিজ্ঞতা দিয়ে ভারত সফর শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের। দিল্লির পরিবেশ এতটাই দূষিত যে, অনুশীলনের সময় নানা ধরনের শারীরিক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ক্রিকেটারদের।

দূষণের শহর দিল্লিতে আগামী রবিবার প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ। তার আগে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের সমস্যার কথা জানান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, ‘এখানে খুব ধোঁয়া যা কুয়াশার মতো পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এটা ক্রিকেটের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ না। একজন ক্রিকেটার হিসেবে এমন পরিবেশ আপনি অবশ্যই আশা করবেন না। অনুশীলনে আমাদের চোখ চুলকাচ্ছে, গলা শুকিয়ে আসছে; কিন্তু কেউ অসুস্থ হয়নি, এটাই বড় কথা।’

এমন দূষণ বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের কাছে একদম নতুন কিছু নয় বলে মনে করেন ডোমিঙ্গো। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের কাছে এই পরিবেশ খুব একটা নতুন কিছু না। বাংলাদেশেও কিন্তু বায়ুদূষণ আছে। তাই আমি বলব এই পরিস্থিতির সঙ্গে ছেলেরা ইতিমধ্যেই খাপ খাওয়াতে পেরেছে। আমাদের শুধু নিজেদের কাজ নিয়ে এগোতে হবে। আমি চিকিৎসক না। তাই এসব নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না।’

এর আগে বৃহস্পতিবার শুধু লিটন দাসকে মাস্ক পরে অনুশীলন করতে দেখা গেছে। শুক্রবার দলের অনেকেই মাস্ক পরেছিলেন। বাদ ছিলেন শুধু মোস্তাফিজুর রহমান ও মুশফিকুর রহিম।

বাতাসের গুণমান সূচক বা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) ০ থেকে ৫০-এর মধ্যে ঘোরাফেরা করলে তা স্বাস্থ্যের পক্ষে অনুকুল বলে ধরা হয়। বাজির কানফাটানো আওয়াজ এবং তা থেকে নির্গত বিষাক্ত গ্যাসের জেরে দিওয়ালিতে দিল্লি এবং নয়ডার গড় একিউআই বেড়ে ৩০৬ ও ৩৫৬ -তে দাঁড়িয়েছিল আগেই। এই মুহূর্তে দিল্লির একিউআই ৫০০ ছাড়িয়ে গেছে!